আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আজই শেষযাত্রায় সোমেন মিত্র। বুধবার রাত ২টো নাগাদ বেলভিউ নার্সিংহোমে প্রয়াত হন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। সোমেন মিত্রর প্রয়াণের খবর পেয়ে দিশেহারা হয়ে গিয়েছিলেন কংগ্রেস কর্মীরা। হাসপাতালে ভিড় করেন তাঁরা। সেই ধাক্কা সামলে দলের দীর্ঘদিনের বর্ষীয়ান নেতা ছোড়দা–কে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর পরিকল্পনা শুরু হয়ে গেছে।
জানা গিয়েছে, সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ হাসপাতাল থেকে সোমেন মিত্রর দেহ সরাসরি নিয়ে যাওয়া হবে প্রদেশ কংগ্রেস দপ্তর বিধান ভবনে। সেখান থেকে বিধানসভা ভবন ও তাঁর বাড়ি হয়ে নিমতলা ঘাটে শেষকৃত্য হবে। হাসপাতালে আছেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস সাংসদ তথা তাঁর সতীর্থ প্রদীপ ভট্টাচার্য। অন্যান্য রাজনৈতিক দলের যুব নেতারাও শেষযাত্রায় শামিল হতে পৌঁছে গিয়েছেন হাসপাতালে। 
প্রদেশ কংগ্রেস সূত্রে খবর, কলকাতার যে বেসরকারি হাসপাতালে প্রয়াত হয়েছেন বছর আটাত্তরের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি, সেখান থেকে সাড়ে ৯টা নাগাদ বেরবে তাঁর মৃতদেহ। প্রথমে ঠিক ছিল, হাসপাতাল থেকে সোমেন মিত্রকে নিয়ে যাওয়া হবে রডন স্ট্রিটে, তাঁর বাসভবনে। কিন্তু পরে এই সূচিতে বদল করা হয়। হাসপাতাল থেকে সরাসরি সোমেন মিত্রর মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হবে বিধান ভবনে। প্রদেশ কংগ্রেস ভবনে প্রিয় ছোড়দা–কে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে আসবেন দলীয় কর্মীরা। সামাজিক দূরত্ববিধি মেনেই চলবে শ্রদ্ধা জানানোর পালা।
দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ প্রদেশ কংগ্রেস ভবন থেকে বেরবে সোমেন মিত্রর মৃতদেহ। যাবে বিধানসভা ভবনে। ১৯৭২ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত বিধায়ক থাকাকালীন বারবার এই ভবনে পা রেখেছেন তিনি। ঘণ্টাখানেক বিধানসভা ভবনে শায়িত থাকবে তাঁর মৃতদেহ। চলবে শেষ শ্রদ্ধাজ্ঞাপন। এরপর দেহ পৌঁছবে প্রয়াত প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির বর্তমান বাসভবন, ৩ রডন স্ট্রিটের বাড়িতে। পরিবারের সদস্যরা সেখানে শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন। এরপর নিমতলা শ্মশানে হবে শেষকৃত্য। 

 

 


 

জনপ্রিয়

Back To Top