আজকাল ওয়েবডেস্ক: করোনাভাইরাসের বেশে মহিষাসুর, চিকিৎসকের সাদা অ্যাপ্রন পরিহিতা মহিষাসুরমর্দিনী। হাতে ত্রিশূলের বদলে ইঞ্জেকশন সিরিঞ্জ। দেবীর গলায় স্টেথোস্কোপ। বাকি আট হাতেও চিকিৎসার নানা সরঞ্জাম। প্রতিমার পিছনে অ্যাম্বুল্যান্স। শিলিগুড়ির মৃৎশিল্পী জিতেন পাল এভাবেই এবার গড়েছেন দশ প্রহরণধারিণীকে। বাকি দেবদেবীদেরও কোভিড যুদ্ধের সামনের সারির যোদ্ধাবেশে ভেবেছেন শিল্পী। তাই সাফাইকর্মীর বেশে কার্তিক, সাংবাদিকের বেশে সরস্বতী, নার্সের রূপে লক্ষ্মী এবং পুলিশকর্মীর বেশে গণেশকে গড়েছেন জিতেন। কোভিড আবহে বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসবের জন্য তৈরি রাজ্যের এমনই একটি বারোয়ারি পুজোর প্রতিমাকে ‘‌অসাধারণভাবে ঠিক’ বলে টুইটারে উল্লেখ করেছেন কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর‌। শিল্পীর নাম না জানলেও ঠিক সময়, ঠিক মূর্তি গড়ার জন্য প্রতিমাশিল্পী এজন্য টুইটারে অভিবাদনও জানিয়েছেন সাংসদ। পরে শশীর টুইট পোস্টের জবাবে শিলিগুড়ির মাটিগাড়ার বাসিন্দা নিত্যা পাল সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে শিল্পী জিতেন পাল এবং কোথায় মূর্তিটি গড়া হয়েছে তা জানান।   

জনপ্রিয়

Back To Top