বিভাস ভট্টাচার্য: তদন্তের প্রয়োজনে ডাকা হলেও আসেননি সিআইএসএফ জওয়ানরা। এবার তাই সিআইএসএফের আইজি-কে চিঠি পাঠাল রাজ্য সিআইডি। চিঠিতে শীতলকুচি কাণ্ডে ঘটনাস্থলে উপস্থিত জওয়ানদের পাঠাতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। রাজ্য সিআইডির এক আধিকারিক জানিয়েছেন একথা। সেই সঙ্গে তিনি বলেন, গোটা ঘটনার পুনর্নির্মাণ করা হবে। আগামী সপ্তাহেই সিআইডির পদস্থ আধিকারিকরা পুনর্নির্মাণের জন্য শীতলকুচি যাবেন। 
১০ এপ্রিল রাজ্যে চতুর্থ দফার ভোট চলাকালীন কোচবিহার জেলার শীতলকুচির জোরপাটকি গ্রামে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মারা যান চারজন গ্রামবাসী। ঘটনায় উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। প্রাথমিকভাবে মামলার তদন্ত স্থানীয় পুলিশের হাতে থাকলেও রাজ্য সরকারের নির্দেশে মামলার দায়িত্ব নিয়েছে সিআইডি। তদন্তের জন্য চার সদস্যের একটি স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম বা সিট তৈরি করেছে তারা। যার মাথায় আছেন ডিআইজি সিআইডি (স্পেশাল) কল্যাণ মুখার্জি। এই মামলায় এখনও পর্যন্ত মাথাভাঙা থানার তদন্তকারী অফিসার মলয় বোস ও মাথাভাঙার এসডিপিও ছাড়াও আরও কয়েকজন স্থানীয় পুলিশ আধিকারিককে জেরা করেছে সিআইডি। 
সিআইডির ওই সূত্রটি জানিয়েছে, ঘটনার পুনর্নির্মাণে ওই এলাকার গ্রামবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গেও কথা বলা হবে। সেইসঙ্গে ঘটনার বিবরণে স্থানীয় থানা ও অন্য যে সমস্ত পুলিশ আধিকারিকের বক্তব্য রেকর্ড করা হয়েছে তা গ্রামবাসীদের বক্তব্যের সঙ্গে মিলিয়ে দেখা হবে।
 

জনপ্রিয়

Back To Top