আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সকাল থেকেই একনাগাড়ে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতে ফের জলমগ্ন কলকাতা এবং সংলগ্ন অঞ্চল। শুধু কলকাতা এবং দুই ২৪ পরগনা নয়, বিক্ষিপ্তভাবে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলিতেও। এদিন সকালেই বৃষ্টির শব্দে ঘুম ভাঙে নগরবাসীর। মাঝে কিছুক্ষণের জন্য রোদের মুখ দেখলেও বেলা ১২টা থেকে কোথাও মুষলধারে, কোথাও মাঝারিমাপে বৃষ্টি শুরু হয়। মঙ্গলবার সকাল ৮.‌৩০ মিনিট থেকে গত ২৪ ঘম্টায় বৃষ্টি হয়েছে ২.‌১ মিলিমিটার। উপকূলবর্তী অন্ধ্র এবং লাগোয়া অঞ্চল তৈরি হয়েছে ঘূর্ণাবর্ত। আরেকটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে অসম এবং সংলগ্ন অঞ্চলে। এই জোড়া ঘূর্ণাবর্তের ধাক্কায় আগামী ১২ তারিখ পর্যন্ত কলকাতা সহ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বিক্ষিপ্তভাবে বজ্রবিদ্যুৎ সহ মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।
বুধবার সকাল থেকে তুমুল বর্ষণে জল জমে গিয়েছে কলেজ স্ট্রিট, পার্ক সার্কাস, সেক্টর ফাইভ, ধর্মতলা, ঠনঠনিয়া, চাঁদনি চওক, মুক্তারামবাবু স্ট্রিট সহ বিভিন্ন এলাকায়। পুজোর ছুটির পর বুধবারই খুলেছে সব অফিস। তার ফলে রাস্তায় সকাল থেকেই নিত্যযাত্রীদের ভিড়। কিন্তু বৃষ্টির ফলে রাস্তা জলে ডুবে যাওয়ায় যান চলাচল ব্যাহত হয়ে পড়েছে। রাস্তা ফাঁকা থাকলেও জল জমে থাকায় গাড়ির গতি কম হয়ে গিয়েছে। পুজোর সময় সেভাবে আবর্জনা সাফাই না হওয়ায় বিশেষ করে কলেজ স্ট্রিটের বাজার এলাকায় নিকাশি ব্যবস্থার প্রায় বেহাল দশা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বৃষ্টি কিছুটা কমলেও রাস্তার জলস্তর বেড়েছে। উঁচু জায়গার জল গড়িয়ে এসে কলেজ স্ট্রিটে প্রায় হাঁটুজল হয়ে গিয়েছে। এভাবে জল আরও বাড়তে থাকলে কলেজ স্ট্রিটে যান চলাচল বন্ধ করে দিতে হবে বলে আশঙ্কাপ্রকাশ করেছে পুলিস। বৃষ্টি এবং জলমগ্ন রাস্তার ফলে বাবুঘাটে বুধবার প্রতিমা নিরঞ্জনেও প্রভাব পড়েছে। বিকেল পর্যন্ত যেখানে বহু প্রতিমা বিসর্জন হয়ে যায়, সেখানে তুলনামূলকভাবে অনেক কম প্রতিমা বিসর্জন হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিস।        

জনপ্রিয়

Back To Top