আজকালের প্রতিবেদন- রাস্তা–‌হারিয়ে–‌ফেলা বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন এক মহিলাকে পরিবারের কাছে ফেরাল ভবানীপুর থানার পুলিশ। কয়েক দিন আগে সকাল ১১টা নাগাদ হাজরা মোড়ে চিত্তরঞ্জন সেবা সদনের সামনে এক মহিলাকে উদ্দেশ্যহীন ভাবে ঘোরাঘুরি করতে দেখে ভবানীপুর থানার পুলিশ। জিজ্ঞাসা করতে কোনও কথাই স্পষ্ট করে বলতে পারছিলেন না তিনি। খানিক ধাতস্থ হওয়ার পর নাম–‌ঠিকানা জানতে চাইলে কোনওক্রমে মহিলা তঁার নাম বলেন মুনমুন দাস। অফিসারেরা বুঝতে পারেন, মহিলা অটিস্টিক। বাড়ির ঠিকানা বলতে গিয়ে কাঙালবেড়িয়া এবং বিষ্ণুপুর দুটি জায়গার নাম উচ্চারণ করেন। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর থানায় যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু সেখান থেকে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। জানা যায়, নীলরতন সরকার হাসপাতালে তিনি এসেছিলেন। ফের বিষ্ণুপুর থানায় যোগাযোগ করে অরিজিৎ দাস নামে একজনের সন্ধান মেলে। অরিজিৎবাবু ওই হাসপাতালেরই অধ্যক্ষের ব্যক্তিগত সহকারীর চাকরি করেন। মুনমুন তঁারই বোন। অরিজিৎবাবু তঁাকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু তিনি নিখেঁাজ হয়ে যান। এর পরই অরিজিৎবাবু তঁার আরেক বোন লিলি দাসকে সঙ্গে নিয়ে থানায় আসেন ও মুনমুনকে নিয়ে যান।‌‌

মুনমুন দাস

জনপ্রিয়

Back To Top