এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে মুকুল জায়াকে নিয়ে যাওয়া হল চেন্নাই 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মুকুল জায়াকে এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে নিয়ে যাওয়া হল চেন্নাই। কৃষ্ণা রায় গুরুতর অসুস্থ। তাঁর ফুসফুস প্রতিস্থাপন করা হতে পারে। সেই উদ্দেশে বুধবারই তাঁকে এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে চেন্নাই উড়িয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আবহাওয়া খারাপ থাকায় গতকাল যাত্রা স্থগিত রাখা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে আবহাওয়ার সামান্য উন্নতি হতেই কৃষ্ণাদেবীকে নিয়ে চেন্নাই রওনা দিল এয়ার অ্যাম্বুল্যান্স। সঙ্গে গেলেন ছেলে শুভ্রাংশু রায়।
বুধবারই দিল্লি থেকে কলকাতায় এসেছিল এয়ার অ্যাম্বুল্যান্স। জরুরীকালীন চিকিৎসার সমস্ত সরঞ্জামই রয়েছে সেই অ্যাম্বুল্যান্সে। একমো সাপোর্টে রয়েছেন কৃষ্ণাদেবী। এদিন সকাল সোয়া সাতটা নাগাদ হাসপাতাল থেকে কৃষ্ণা রায়কে বের করে এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে তোলা হয়।
গত ১৪ মে সস্ত্রীক মুকুল রায় করোনা আক্রান্ত হন। বর্তমানে তৃণমূল নেতা চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে বাড়িতেই রয়েছেন। তবে তাঁর স্ত্রী কৃষ্ণা রায়ের শারীরিক অবস্থা ভাল না থাকায় তাঁকে শহরের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। একমো সাপোর্টেই ছিলেন তিনি। ফুসফুস প্রতিস্থাপন করার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। সেই অনুযায়ী অঙ্গদাতার খোঁজ চলছিল। অঙ্গদাতার খোঁজ মিলতেই কৃষ্ণা রায়কে চেন্নাই নিয়ে যাওয়া হল। সেখানে একাধিক শারীরিক পরীক্ষার পর হতে পারে ফুসফুস প্রতিস্থাপন।