করোনা কালে সব থেকে বড় চ্যালেঞ্জ শিশু সুরক্ষা । বলছেন রাজ্যের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা। নির্বাচনের পরে নিজের দপ্তরের লক্ষ্য  নিয়ে aajkaal.in কে প্রথম সাক্ষাৎকার দিলেন। বললেন,  করোনা আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করাটাই যথেষ্ট নয়; অনেক ক্ষেত্রে কোভিড আক্রান্ত হয়ে মা অথবা বাবা মারা গেলে সেই শিশুটি কার্যত অসহায় হয়ে পড়ছে। মানসিক বা শারীরিক হেনস্থা তো আছেই, এমনকি পাচার চক্রের হাতেও পড়ছে তারা। তাই রাজ্য শিশু সুরক্ষা দপ্তর চালু করেছে ৪ টি বিশেষ " হেল্প লাইন" নম্বর। 
রাজনীতিক হিসেবে পরিচিত হলেও আদতে শশী পাঁজা একজন চিকিৎসক।

করোনা কালে ভোট প্রচারের পাশাপাশি চিকিৎসাও চালিয়ে গেছেন। কোভিড আক্রান্ত হয়েছিলেন নিজেও। তাই একদিকে যেমন সকলকে সতর্কতার পাঠ দিচ্ছেন, অন্যদিকে বলছেন " কেন্দ্রীয় সরকার প্রথম থেকে রাজনীতি না করলে এতদিনে রাজ্যে সবাই ভ্যাকসিন পেয়ে যেতেন। আট দফায় ভোট হল। তখন যারা বাইরে থেকে এসে প্রচার করলেন, ভিড় বাড়ালেন তাঁরা এখন কোথায়"?
পর পর দু'বার একই দপ্তরের দায়িত্ব। রাজনৈতিক মহল বলছে, তৃণমূল নেত্রীর অন্যতম ভরসার পাত্র তিনি। শশী পাঁজা নিজে অবশ্য বলছেন, "দিদি যে দায়িত্ব দিয়েছেন সেটা মন দিয়ে পালনের চেষ্টা করি"। তবে দলের অন্দরে অনেকেই মনে করেন, কথা কম বলে নিজের মত কাজ করে যাওয়াই উত্তর কলকাতার শ্যামপুকুরের বিধায়ককে অন্যদের থেকে এগিয়ে রাখে।

জনপ্রিয়

Back To Top