আজকালের প্রতিবেদন: ‌শহর জঞ্জাল মুক্ত রাখুন, এই আবেদন জানিয়ে রবিবার কলকাতার মেয়র ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম গোটা চেতলা এলাকায় জনযাত্রা করলেন। শুধু তাই নয়, হাতে রবারের গ্লাভস পরে রাস্তার দু’‌ধারে পড়ে থাকা প্লাস্টিকও পরিষ্কার করেন। সম্প্রতি মেয়র একই আবেদন জানিয়ে এই কর্মসূচি পালন করেছিলেন। এদিনের চিত্রটা ছিল একটু অন্যরকম। দু’‌হাত ভর্তি চট ও কাপড়ের ছোট ব্যাগ নিয়ে ফিরহাদ যান চেতলার সিআইটি মার্কেটে। বিক্রেতাদের বলেন, ‘‌এবার থেকে এই ধরনের ব্যাগ আপনাদের কিনতে হবে। দাম পড়বে ৫ টাকা।’‌ ফিরহাদ সকলকে বিনা পয়সায় এই ব্যাগ বিলি করেন। তিনি বলেন, ‘‌পরের বার থেকে কিনতে হবে।’‌ 
আম্বেদকর কলোনিতে গিয়ে জমে থাকা জঞ্জাল দেখে উষ্মা প্রকাশ করে ফিরহাদ বলেন, ‘‌এই জমে থাকা জঞ্জাল থেকেই মশার জন্ম হয়। এলাকা দূষণ হয়। আপনারা এব্যাপারে সচেতন থাকুন। এদিন ফিরহাদ গোপালনগরেও ঘোরেন। এলাকাবাসীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‌দূষণমুক্ত কলকাতা তৈরি করতে হবে। বাড়ির ছেলেমেয়েদের কথা ভাবতে হবে। চেতলা বাজারের সামনে এসে  ফিরহাদ বলেন, ‘‌মাছ বিক্রেতা, সবজি বিক্রেতা যদি প্লাস্টিকের ব্যাগে জিনিসপত্র বিক্রি করেন, আর সেটা যদি কেউ ধরিয়ে দিতে পারেন, তাহলে তাঁকে ২০০০ টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে। এছাড়া বিক্রেতাদেরও জরিমানা দিতে হবে।’‌ জনযাত্রায় ভিড় ছিল লক্ষ্য করার মতো। অনেকেই প্ল্যাকার্ড নিয়ে এসেছিলেন। তাতে লেখা ছিল ‘‌পাঁচ টাকা দিয়ে চটের থলি কিনুন, যত্রতত্র প্লাস্টিক ফেলবেন না। আজ থেকে প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ করে দিন। অটোর ওপর মাইক লাগিয়ে প্রচারও করা হয়। সকাল ১০টা থেকে শুরু হয় মেয়রের এই অভিযান। চলে প্রায় ১২টা পর্যন্ত। এদিন ফিরহাদ বলেন, ‘‌নিজেরা যদি সচেতন হই তাহলে দেখবেন শহর আরও সুন্দর হয়ে উঠছে। নিজেদের এলাকা ঝকঝকে হয়ে উঠবে। মশার উৎপাত বন্ধ হবে। দূষণের হাত থেকে মুক্তি পাবে স্থানীয় মানুষ।’‌ ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top