করোনা কেড়ে নিল বসত বাড়ি!‌ অসহায় রাজারহাটের বাসিন্দা

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মারণ ভাইরাস করোনা কেড়ে নিল বসত বাড়ি। করোনার জের, নার্সিংহোমের বিল মেটাতে বিক্রি করতে হল বাড়ি!‌ অসহায় হয় পড়েছেন রাজারহাটের বাসিন্দা আকাশ গুপ্ত। কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই চলছিল চিকিৎসা। কিন্তু চিকিৎসা করতে গিয়ে দেখা যায় খরচ হচ্ছে প্রচুর। নার্সিংহোমে বিল মেটাতে পারছিলেন না রোগীর পরিবার। তাই নার্সিংহোমের বিল মেটাতে গিয়ে বিক্রি করতে হল বাড়ি। প্রোমোটারের কাছে বাড়ি বিক্রি করে চলছে করোনা আক্রান্ত আশিষ গুপ্তর চিকিৎসা। এ প্রসঙ্গে আকাশ গুপ্তর পরিবারের লোকজন বলছেন, ‘‌কোভিড থেকে সুস্থ হওয়ার পর আকাশকে নিয়ে কোথায় উঠব জানি না। আমাদের একমাত্র সম্বল ছিল ওই বসত বাড়ি। তা বিক্রি করতে হল কোভিডের চিকিৎসার জন্য। ঠিকানাহান হয়ে পড়লাম আমরা গোটা পরিবার।’‌ 
প্রসঙ্গত, কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর প্রথম আশিষ বাবুকে ভর্তি করা হয়েছিস কাঁকুরগাছির এক বেসরকারি নার্সিংহোমে। সেখানে চিকিৎসা করাতে গিয়ে খরচ হয় ৭ লক্ষ টাকা। করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই অক্সিজেন স্যাচুরেশন কমতে থাকে। ফুসফুস কার্যত বিকল হয়ে পড়ে। এহেন পরিস্থিতিতে রোগীকে রাখা হয় একমো সাপোর্টে। শিরা থেকে দূষিত রক্ত প্রথমে হৃৎপিণ্ডের ডান দিকে যায় তারপর ফুসফুসে যায়। ফুসফুস এবং হৃৎপিণ্ড বিকল হয়ে পড়ে। এরপর তাঁকে সল্টলেকের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে রেখেই চলছিল চিকিৎসা। কিন্তু চিকিৎসা করাতে গিয়ে বিল দাঁড়ায় প্রায় ২২ লক্ষ টাকা। আর এহেন পরিস্থিতিতে হাসপাতালের বিল মেটাতে গিয়ে বাড়ি বিক্রি করতেই হল। এখন পরিস্থিতি এমনই আশিষ বাবু সুস্থ হয়ে উঠলেও তাঁকে নিয়ে বাড়িতে নয় ফুটপাতে বাস করতে হবে বলেই জানাচ্ছে রোগীর পরিবার।