আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ তৃতীয়বারের জন্য দিল্লি বিধানসভার ক্ষমতা দখলের জন্য অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে ফোন করে অভিনন্দন জানালেন মমতা ব্যানার্জি। আপের জয়ের ইঙ্গিত পেতেই মঙ্গলবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মমতা বললেন, ‘আমি অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে অভিনন্দন জানিয়েছি। ‌মানুষ বিজেপিকে বাতিল করেছে। উন্নয়নই শেষ পর্যন্ত কাজ দেয়। মানুষ এখন রুটি, কাপড় আর বাড়ি চায়। মানুষ বিভাজনের রাজনীতি চায় না। আমরা খুব খুশি যে এতো ধর্মের রাজনীতি সত্ত্বেও সংকীর্ণতা জেতেনি। ষড়যন্ত্র, বিদ্বেষের রাজনীতি করেছে বিজেপি। মহারাষ্ট্র, ঝাড়খণ্ডে হেরেছে। যেখানেই ভোট হচ্ছে সেখানেই হারছে বিজেপি।’
মমতা আরও বলেন, ‘‌আপের জয় এবং বিজেপির পরাজয়ে আমি খুশি। ঘৃণার রাজনীতির কোনও জায়গা নেই।‌ দিল্লিতে গণতন্ত্রের জয় হয়েছে। বিজেপি ঝুরি ঝুরি মিথ্যা বলেছে। গুজব আর মিথ্যা প্রচারের জন্য টাকা ছড়িয়েছে। কোনও ব্যবস্থা বাকি রাখেনি প্রচারের জন্য। আমি নিশ্চিত সিএএ বাতিল করবেন মানুষই। এই সব জিনিসগুলো ভোটে অর্থহীন। আশা করছি দিল্লি ভোটের পর সিএএ, এনআরসি, এনপিআর প্রত্যাহার করবে কেন্দ্র এবং দেশের অর্থনীতির দিকে নজর দেবে।’‌
প্রসঙ্গত, তৃণমূলই একমাত্র দল, যারা ঘোষিতভাবে দিল্লি ভোটে আপকে সমর্থন করেছিল। তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’‌ব্রায়েন দিল্লির প্রবাসী বাঙালির আপকে ভোট দিতে আবেদন করেছিলেন। এদিন ভোটবাক্সের ট্রেন্ড পরিষ্কার হতেই দিল্লিতে সংসদের বাইরে তৃণমূলের লোকসভার সাংসদ সৌগত রায় বিজেপিকে এই বলে কটাক্ষ করেন যে, দিল্লি বিধানসভা ভোটে হাই ভোল্টেজ প্রচার করলেও তা কাজে দেয়নি বিজেপির।  
ছবি:‌ এএনআই  ‌

জনপ্রিয়

Back To Top