আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ জেএনইউ–তে দুষ্কৃতী তাণ্ডবের সময় পুলিসি নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে তোপ দাগলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। সোমবার তিনি বলেন, ‘‌দিল্লি পুলিস অরবিন্দ কেজরিওয়ালের হাতে নয়। কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রণাধীন। একদিকে যখন ওরা বিজেপির গুন্ডাদের পাঠিয়েছিল তাণ্ডব চালাতে তখন পুলিসকে নিষ্ক্রিয় থাকতে নির্দেশ দিয়েছিল।

পুলিস কী করবে যদি তাদের উপরতলা থেকে নির্দেশ আসে?‌ এটা তো ফ্যাসিবাদী সার্জিকাল স্ট্রাইক।’‌
ছাত্র রাজনীতি দিয়ে রাজনৈতিক জীবন শুরু করায় ছাত্র রাজনীতি তিনি ভালই বোঝেন বলে জানিয়ে মমতার অভিযোগ, বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকার শুধু ছাত্রছাত্রীদেরই নয় অধ্যাপকদের উপরও অত্যাচার করছে।

পুরো ঘটনাটাই খুব বিরক্তিকর বলে মন্তব্য করে মমতার কটাক্ষ, ‘এটা গণতন্ত্রের উপর বিপজ্জনকভাবে ‌পরিকল্পিত আঘাত। কারও কোনও কথা বলার উপায় নেই। কেউ সরকারের বিরুদ্ধে কথা বললেই তাকে পাকিস্তানি বা দেশদ্রোহী বলে আঘাত করা দেওয়া হচ্ছে। এরকম অবস্থা দেশে আগে কখনও দেখিনি।’‌ 
জেএনইউ, এএমইউ, বিএইচইউ, বিইউ,  আইআইটি–তে ছাত্রবিক্ষোভ দমনে সিআইএসএফ পাঠানোর কেন্দ্রীয় নীতির কঠোর সমালোচনা মুখ্যমন্ত্রী জানান, তাদের কাজ শুধুই রাজনৈতিক নেতাদের নিরাপত্তা দেওয়া।

মমতা আরও বলেন, ভারতের সঙ্গে কখনওই পাকিস্তানের তুলনা চলে না। কারণ পাকিস্তান গণতান্ত্রিক দেশ নয়, কিন্তু ভারত গণতান্ত্রিক দেশ। পাকিস্তানে মৌলিকত্ব বেশি আছে। কিন্তু ভারত ধর্মনিরপেক্ষ দেশ।
ছবি:‌ এএনআই‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top