আজকালের প্রতিবেদন- বিরোধী দলের প্রায় সব নেতাই বু্থ‌ফেরত সমীক্ষাকে কোনও গুরুত্ব না দিয়ে মহাজোটের প্রস্তুতি আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে দিলেন। তাঁরা নিশ্চিত, নরেন্দ্র মোদি আর ফিরছেন না। দেশে তৈরি হবে মহাজোটের সরকারই। 
বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে আশ্বস্ত করে উত্তরপ্রদেশের সপা নেতা অখিলেশ যাদব ফোনে সোমবার তাঁকে বলেন, উত্তরপ্রদেশে সপা–বসপার মহাজোট ৫০টি আসন পাবেই। বুথ‌ফেরত সমীক্ষা আদৌ বিশ্বাসযোগ্য নয়। 
এদিনই বিকেলে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু কালীঘাটে মমতার বাড়িতে গিয়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করেন। দু’‌জনের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সূত্রের খবর, দিল্লিতে মহাজোটের বৈঠক ডাকা হচ্ছে। মমতা আগেই জানিয়েছেন, ‌২৩ মে, বৃহস্পতিবার ফল প্রকাশের পরেই তিনি দিল্লি যেতে চান। 
মহাজোটের কৌশল নিয়ে মমতা–চন্দ্রবাবু কথা হয়েছে। চন্দ্রবাবু মমতাকে জানিয়েছেন, তিনি কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গেও মহাজোট নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। ইভিএম নিয়েও দু’‌জনের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। মমতা ইতিমধ্যেই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, গণনার দিন সুকৌশলে ইভিএমে কারসাজি করে জিততে চাইছে বিজেপি। সূত্রের খবর, একই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন চন্দ্রবাবুও। 
কালীঘাটে বৈঠকের পর দু’‌জনের কেউই প্রকাশ্যে সাংবাদিকদের কিছু জানাননি। চন্দ্রবাবুর সঙ্গে আলোচনার পর মমতা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম ও অভিষেক ব্যানার্জির সঙ্গেও কিছুক্ষণ বৈঠক করেন। ঘটনাচক্রে, তার খানিকক্ষণ পরেই তৃণমূলের সর্বভারতীয় মুখপাত্র ডেরেক ও’‌ব্রায়েন টুইট করে জানান, আজ, মঙ্গলবার বিরোধীদের প্রতিনিধিরা নির্বাচন কমিশনে যাবেন। তাঁরা বিভিন্ন বিষয়ে কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাবেন। যার মধ্যে সবচেয়ে জরুরি, তাৎপর্যপূর্ণ এবং উল্লেখযোগ্য হল ইভিএম।‌
এদিন সন্ধ্যায় চন্দ্রবাবু বিমানবন্দর থেকেই সোজা কালীঘাটে আসেন। সেখানে ছিলেন ফিরহাদ এবং অভিষেক। হলুদ গোলাপফুলের তোড়া দিয়ে মমতা চন্দ্রবাবুকে অভিনন্দন জানান। তার পর তাঁদের বৈঠক শুরু হয়। 
এদিন মমতা বাড়িতেই ছিলেন। বিভিন্ন এলাকায় ফোন করে তিনি পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার জন্য দলের নেতাদের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। এলাকায় শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য পুলিশকে প্রয়োজনীয় নির্দেশও দিয়েছেন। 
প্রসঙ্গত, রবিবার সপ্তম তথা শেষ দফা ভোটের পর বুথ‌ফেরত সমীক্ষা বিভিন্ন চ্যানেলে দেখার পর মমতা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘‌আমি এসব বিশ্বাস করি না। এসব গালগল্প (‌গসিপ)‌। হাজার হাজার ইভিএমে কারচুপির পরিকল্পনা করে এইসব গালগল্প তৈরি করা হচ্ছে। এটা নরেন্দ্র মোদির গেম প্ল্যান।’ 
তৃণমূলের প্রথম সারির সব নেতাই ভোট–পরবর্তী বুথফেরত সমীক্ষাকে সম্পূর্ণ ভুল বলে মন্তব্য করেছেন। তাঁদের বক্তব্য, সমীক্ষার যেসব ফলাফল দেখানো হয়েছে তা যেমন বিশ্বাসযোগ্য নয়, তেমনই অসত্য। 

বৈঠকের পর বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। রয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমও। সোমবার, কালীঘাটে। ছবি: আজকাল

জনপ্রিয়

Back To Top