অভিজিৎ বসাক
বইপাড়ার পাশে সবাই। আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত কলেজ স্ট্রিটকে সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে প্রকাশকদের সংগঠন, সাহিত্যিক, চিত্রতারকা, ক্রিকেটার, পড়ুয়া থেকে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। সাহায্য এসেছে বিদেশ থেকেও।
আমফানে কলেজ স্ট্রিটে প্রচুর বই নষ্ট হয়েছে। দোকান, বই রাখার গুদামে জল ঢুকে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। লকডাউন থাকায় অনেক প্রকাশক, দোকানি তঁাদের বই নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যেতে পারেননি। জলের তোড়ে ভেসে গিয়েছে বই। ক্ষতিগ্রস্ত বইপাড়াকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন অনেকেই। শুরু করেন অর্থ–‌সংগ্রহ। ইতিমধ্যে বেশ কিছু ক্ষতিগ্রস্ত প্রকাশক, ছোট–‌বড় দোকানের একাংশের কাছে সাহায্য পৌঁছে দেওয়া গিয়েছে। পাবলিশার্স অ্যান্ড বুকসেলার্স গিল্ড আবেদন করেছিল অর্থের। সেই আবেদন সাড়া দিয়ে দেশ–বিদেশ থেকে এসেছে সাহায্য। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত গিল্ডের কাছে জমা পড়েছে সাড়ে ১১ লক্ষ টাকা। ওই তহবিলে অর্থ দিয়েছেন সাংসদ ডেরেক ও’‌ব্রায়েন, কবি শ্রীজাত–‌সহ বিশিষ্টরা। অর্থ সংগ্রহে নাট্যদল ‘‌নট–রঙ্গ’‌ অনলাইনে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। অর্থ কীভাবে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে দেওয়া যায়, সেজন্য তৈরি হয়েছে কমিটি। গিল্ড সচিব সুধাংশু দে জানান, গিল্ড দিয়েছে ৫ লক্ষ টাকা। সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা দিয়েছেন বইপ্রেমীরা। সংগৃহীত অর্থ বিতরণের জন্য তৈরি করা হয়েছে ৫ সদস্যের কমিটি। গিল্ডের সভাপতি ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায় জানান, দেশ–বিদেশ থেকে মানুষ এগিয়ে এসেছেন সাহায্য করতে। ক্ষতিগ্রস্ত প্রকাশক, দোকানদারদের তালিকা তৈরি হচ্ছে। সাহায্য পাওয়ার জন্য গিল্ডের কাছে আবেদন করতে হবে। সময়সীমা ৩০ জুন পর্যন্ত। তবে তার পরও কেউ আবেদন করলে, তঁার কথা ভেবে দেখা হবে।
প্রকাশনা সংস্থা ‘‌মিত্র ও ঘোষ’‌ও এই প্রকাশক, বই–‌বিক্রেতাদের বিপদে ঝঁাপিয়ে পড়ে অর্থ সংগ্রহে করেছে। সেই অর্থ ক্ষতিগ্রস্তদের দেওয়ার কাজ অনেকটাই হয়ে গিয়েছে। ‘‌মিত্র ও ঘোষ’–‌এর অন্যতম কর্ণধার ইন্দ্রাণী রায় মিত্র জানান, বইপাড়াকে সাহায্য করতে অনেকে এগিয়েছে এসেছেন। বিশিষ্ট সাহিত্যিক রাসকিন বন্ড দিয়েছেন ২৫ হাজার টাকা, কলকাতা নাইট রাইডার্সের পক্ষ থেকে পাওয়া গিয়েছে ২.‌৫ লক্ষ টাকা। এই উদ্যোগের প্রশংসা করে টুইট করেছিলেন লেখক–সাংসদ শশী থারুর। এখনও পর্যন্ত প্রায় ২২ লক্ষ টাকা উঠেছে। এর মধ্যে ১৪২ জন বই–‌বিক্রেতা, প্রকাশককে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়েছে। বাকি অর্থও তুলে দেওয়া হবে। এ কাজে সাহায্য করেছে ‘‌মিলাপ’‌, ‘‌কলকাতা লিটারারি মিট’।
পশ্চিমবঙ্গ প্রকাশক সভার সাধারণ সম্পাদক, দীপ প্রকাশনের কর্ণধার শঙ্কর মণ্ডল জানান, কলেজ স্ট্রিটের জন্য বিশিষ্ট ক্রিকেটার এরাপল্লি প্রসন্ন দিয়েছেন ৫০ হাজার টাকা, অভিনেতা শাহরুখ খান ২.‌৫ লক্ষ টাকা। প্রায় ৮ লক্ষ টাকা পাওয়া গিয়েছে। খুব শিগগিরই সেই টাকা দেওয়ার কাজ শুরু হবে।
প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ কলেজ স্ট্রিট এলাকার ভ্যানচালকদের জন্য খাবার জোগাড় করেছে। ছোট দোকানদারদের সাহায্য করার জন্য অর্থ সংগ্রহ করছে। একই কাজে ওয়েবপোর্টাল ‘‌প্রহর’,‌ ‘‌বইপাড়ার পাশেই’‌ এবং লিটল ম্যাগাজিন ‘‌বোধশব্দ’‌ আর ইকমার্স সাইট ‘‌বইঘরডটইন’, ‘‌বই মরে না’‌ কর্মসূচি নিয়েছিল। ‘‌বাইচ’‌ নামে অনলাইন পত্রিকা প্রকাশ করে অর্থ সংগ্রহ করেছেন একদল তরুণ।

জনপ্রিয়

Back To Top