আজকালের প্রতিবেদন: শহরে আইসিএমআর–‌এর নির্দেশিকা মেনে নতুন পদ্ধতিতে করোনা পরীক্ষা শুরু করছে কলকাতা পুরসভা। প্রতিটি বরোয় র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট হবে। মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছেন স্বাস্থ্য দপ্তরের দায়িত্বে–‌থাকা পুর প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য অতীন ঘোষ। তিনি জানান, একটি সরকারি দপ্তরে এই পরীক্ষা হয়েছে। বৃহস্পতিবার কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিমের ৮২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে শুরু হবে এই পরীক্ষা। এখানে একটি কিটে ১০ জনের লালারসের নমুনা পরীক্ষা করা যায়। ৪০ মিনিটের মধ্যে রিপোর্ট জানা যাবে। রিপোর্ট পজিটিভ হলে তঁার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। আর রিপোর্ট নেগেটিভ হলেও, কোনও ব্যক্তির শরীরে যদি স্বল্প উপসর্গ থাকে, তা হলে বর্তমান নিয়মে আরও একবার তঁার সোয়াব টেস্ট করা হবে। সেই রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করেই পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে।
পুরসভা সূত্রে জানা গেছে, নতুন এই টেস্টে একটি স্ট্রিপে ১০ জনের সোয়াব বা লালারসের নমুনা পরীক্ষা করা যাবে। সে–‌ক্ষেত্রে প্রত্যেকের আলাদা আলাদা রিপোর্ট পাওয়া যাবে। প্রতিটি বরোতে প্রতিদিন ৫০টি করে টেস্ট কিট দেওয়া হবে। প্রতিদিন পরীক্ষা চালানো হবে ১৬টি বরোয়। 
প্রতিদিন একটি অঞ্চল বা ওয়ার্ড থেকে প্রায় ৫০০ জনের টেস্ট করা হবে। প্রতিটি বরোতে এজন্য বিশেষ সেন্টার করা হচ্ছে। বরো কো‌অর্ডিনেটরদের ওপর সেই সেন্টার তৈরির দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। ওয়ার্ড কোঅর্ডিনেটরের সহযোগিতায় কাজ করা হবে। প্রথম পর্যায়ে মূলত সংক্রমিত এলাকা, বাজার, বস্তি, বিভিন্ন শ্রমিক আবাসন, ঘিঞ্জি এলাকা বেছে নেওয়া হয়েছে। প্রতিদিন টেস্টের পরিমাণ বাড়বে, সেই লক্ষ্যে কাজ করা হবে। প্রতিদিন বরো–‌পিছু ৫০টি করে কিটের জোগান দিতে পারলে ৫০০ জনের টেস্ট করা যাবে। সে–‌ক্ষেত্রে, ১৬টি বরো ধরলে টেস্টের সংখ্যা দঁাড়াবে প্রতিদিন প্রায় ৮,০০০। যদিও তার জন্য সব বরোয় পরিকাঠামো তৈরির কাজ চলছে।‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top