আজকালের প্রতিবেদন: স্নাতক স্তরে বাংলা বিভাগে ভর্তির ক্ষেত্রে মাধ্যমিকের বাংলা ও ইংরেজিতে প্রাপ্ত নম্বরকে গুরুত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। বৃহস্পতিবার কলা বিভাগের ভর্তি কমিটির বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অর্থনীতিতে কী ফর্মুলায় ভর্তি নেওয়া হবে তা অবশ্য এদিন ঠিক হয়নি। করোনা পরিস্থিতিতে এবছর কলা বিভাগে ভর্তির ক্ষেত্রে কোনও প্রবেশিকা পরীক্ষা হচ্ছে না। উচ্চমাধ্যমিক ও তার সমতুল পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতেই পড়ুয়া ভর্তি নেওয়া হবে।
যেহেতু এবছর উচ্চমাধ্যমিক, আইএসসি এবং সিবিএসই দ্বাদশের কিছু পরীক্ষা হয়নি তাই ছাত্রছাত্রীদের মেধাকে গুরুত্ব দিতেই বিভাগগুলি নিজেদের মতো সিদ্ধান্ত নেয়। যা ভর্তি কমিটির বৈঠকে গৃহীত হয়েছে বলে জানা গেছে। বাংলার ক্ষেত্রে ঠিক হয়েছে ৭০ শতাংশ নম্বর দেওয়া হবে উচ্চমাধ্যমিক বা তার সমতুল পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর থেকে। এর মধ্যে বাংলা থেকে দেওয়া হবে ৫৫ শতাংশ, ইংরেজি থেকে ১৫ শতাংশ। বাকি ৩০ শতাংশের মধ্যে ২০ শতাংশ নম্বর দেওয়া হবে  পড়ুয়াটির বাংলায় মাধ্যমিকে প্রাপ্ত নম্বর থেকে এবং বাকি ১০ শতাংশ ইংরেজির নম্বর থেকে। ইংরেজির ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ ভাষা এবং বাকি ৫০ শতাংশ সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়ার চারটি বিষয়ের মোট নম্বর থেকে নেওয়া হবে।  তুলনামূলক সাহিত্যের ক্ষেত্রে ভাষা থেকে ৬০ শতাংশ এবং বাকি ৪০ শতাংশ সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়ার চারটি বিষয়ের মোট নম্বর থেকে নেওয়া হবে। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, সমাজবিজ্ঞান, সংস্কৃতের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়ার চারটি বিষয়কে ধরে যে মোট নম্বর তার ভিত্তিতেই ভর্তি নেওয়া হবে। ইতিহাসের ক্ষেত্রে যে–‌কোনও একটি ভাষা এবং সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়া তিনটি বিষয়কে ধরে মোট নম্বরের ভিত্তিতে ভর্তি নেওয়া হবে। দর্শনের ক্ষেত্রে ভাষা এবং বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বরকে গুরুত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী শনিবার বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি পদ্ধতি ঠিক করতে ভর্তি কমিটির বৈঠক রয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top