আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ স্বচ্ছ ভারত অভিযান কর্মসূচি পালন করে কতটা দেশ দূষণ মুক্ত হয়েছে তা নিয়ে বিতর্ক থাকতেই পারে। কিন্তু প্লাস্টিক দূষণ রুখতে লড়াই চলছে বিশ্বজুড়ে। পদক্ষেপ করছে মমতা ব্যানার্জির সরকারও। গঙ্গাসাগর মেলাকে প্লাস্টিকমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছিল। এবার প্লাস্টিকমুক্ত করতে কোমর বেঁধে নামা হচ্ছে কলকাতা বইমেলায়। বইমেলাকে প্লাস্টিকমুক্ত করতে বস্তুত উদ্যোগী হয়েছে আয়োজক পাবলিশার্স অ্যান্ড বুক সেলার্স গিল্ডও। ক্রেতা–বিক্রেতাদের অনুরোধ করা ও সচেতনতার মাধ্যমেই প্লাস্টিকমুক্ত বইমেলার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।
পাবলিশার্স অ্যান্ড বুক সেলার্স গিল্ড সূত্রে খবর, বইপ্রেমী এবং বিক্রেতাদের কাছে প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার না করার আবেদন করা হয়েছে। ক্রেতাদের বাড়ি থেকেই কাপড় বা কাগজের ব্যাগ নিয়ে আসার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। মেলার বেশিরভাগ স্টলেই এখন কাগজের ব্যাগ ব্যবহার করা হবে। অনেকে কাপড়ের ব্যাগও ব্যবহার করছেন। কিছু সংস্থা প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার করে। তাদের কাছে প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার না করার অনুরোধ করা হয়েছে।
প্লাস্টিক বন্ধে প্রচার করছে পশ্চিমবঙ্গ দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদও। শহরের বিভিন্ন বাজারে প্লাস্টিকের বিকল্প হিসেবে কাপড় ও চটের ব্যাগ বিতরণ করা হয়েছে। রাজ্যের পরিবেশমন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্রের কথায়, ‘‌মেলা আমরা প্লাস্টিকমুক্ত করতে চাইছি। সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কের বইমেলা প্রাঙ্গণে দূষণ ঠেকাতে কী কী পদক্ষেপ করা হবে, তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে সোমবার।’‌
গিল্ডের সভাপতি ত্রিদিব চ্যাটার্জি বলেন, ‘‌বইমেলায় বেশিরভাগ বই বিক্রেতাই ফোম, কাপড় এবং কাগজের ব্যাগ ব্যবহার করেন। কিছু ছোট স্টলে প্লাস্টিকের ব্যাগ ব্যবহার হয়। তাঁদেরও আমরা অনুরোধ করেছি যাতে প্লাস্টিক ব্যবহার না করেন। জলেপ প্লাস্টিক পাউচের পরিবর্তে এবার জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তর বিকল্প ব্যবস্থা করবে।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top