আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সাহায্য করার অজুহাতে কিশোরীর সঙ্গে থাকা ব্যাগ ছিনতাই ও তাঁকে মারধরের অভিযোগ উঠল ২ যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে গড়িয়াহাট এলাকায়। সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে ঘটনার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্ত ২ যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 
ঘটনার সূত্রপাত রবিবার রাতে। জানা গিয়েছে, ওইদিন রাতে টিউশন থেকে বেরিয়ে স্কুটিতে মায়ের সঙ্গে পিকনিক গার্ডেনে বাড়ির দিকে যাচ্ছিল দক্ষিণ কলকাতার একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের পড়ুয়া দশম শ্রেণীর ওই কিশোরী (‌১৬)‌। পথে স্কুটি খারাপ হয়ে যায়। তখন রাত প্রায় সাড়ে দশটা। ফলে গাড়িটি নিয়ে হেঁটেই বাড়ির দিকে রওনা দেন মা ও মেয়ে। সেই সময় শেখ ফারদিন আলি ও শেখ ইমরান আলি নামে দুই যুবক তাঁদের কাছে গিয়ে জানায়, তারা সহযোগিতা করতে চায়। কিছুক্ষণ স্কুটিটি ঠেলেও দেয় তারা। বিষয়টিতে সন্দেহ হয় কিশোরীর মায়ের। সেই সময় তিনি ওই যুবকদের জানিয়ে দেন, তাঁদের সাহায্যের প্রয়োজন নেই। অভিযোগ, এরপরও ওই যুবকেরা তাঁদের অনুসরণ করে। আচমকা কিশোরীর সঙ্গে থাকা ব্যাগটি টেনে নেওয়ার চেষ্টা করে তারা।
অভিযোগ, ব্যাগে দুটো মোবাইল ও বেশ কিছু টাকা ছিল। স্বাভাবিকভাবেই ব্যাগটি দিতে চায়নি কিশোরী। টানাটানি করতেই থাকে অভিযুক্তরা। ফলে রাস্তার উপর পড়ে যায় ওই পড়ুয়া। সেই অবস্থায় কিশোরীকে টানতে টানতে বেশ কিছুটা পথ নিয়ে যায় যুবকেরা। মারধরও করে বলে অভিযোগ। জখম হয় সে। অবশেষে ব্যাগটি নিয়ে চম্পট দেয় অভিযুক্তরা। ওইদিন রাতেই গোটা ঘটনা জানিয়ে গড়িয়াহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন কিশোরীর মা। তদন্তে নামে পুলিশ। এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে অভিযুক্তদের শনাক্ত করে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় তাদের। উদ্ধার হয় কিশোরীর ব্যাগটিও। তিলজলার বাসিন্দা দু’‌জনকে ৮ মার্চ অবধি পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top