Jodhpur Park: ‌ক্যাফে কাণ্ডে তৃণমূল সরকারকে আক্রমণ দিলীপের, পাল্টা দিলেন কুণাল 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ লেক থানা এলাকায় ক্যাফের মালকিনকে চাঁদার দাবিতে ‘‌হেনস্থার’‌ অভিযোগে এবার তৃণমূলের দিকে আঙুল তুললেন বিজেপি–র সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তাঁর কটাক্ষ, ‘ঠগ বাছতে গাঁ উজাড় হয়ে যাবে। তোলাবাজিতে মদত দিচ্ছেন তৃণমূল নেতারা। দল–সরকারের উপর নেত্রীর কোনও কন্ট্রোল নেই। ওনার কথা কেউ শোনেন না।’ বুধবার লেক থানা এলাকার একটি ক্যাফেতে বেশ কয়েক জন যুবকের আক্রমণ চালানোর অভিযোগ উঠেছে। ক্যাফে মালকিনের অভিযোগ, তোলা চাওয়া হয় তাঁর কাছে। টাকা না দিলে দোকান ভাঙচুর এমনকি তাঁকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। যদিও এই ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে মূল অভিযুক্ত বিজয় দত্ত–সহ আরও ৫ জনকে। তাদের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। ধৃতদের আজ আদালতে তোলা হলে জামিন পান তারা। ‌ 

এই ঘটনা নিয়েই এবার তৃণমূলকে আক্রমণ করলেন দিলীপ। দিলীপ বলেন, ‘কফি শপ থেকে তোলা চাওয়া হচ্ছে। পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কিন্তু কতজনকে গ্রেপ্তার করবে সরকার? এতে তো ঠগ বাছতে গাঁ–উজাড় হয়ে যাবে। রাজ্য সরকার কি দুর্বৃত্তদের হাতে চলে গিয়েছে?’ দিলীপের এই কটাক্ষের পাল্টা দিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ। এই ঘটনায় তৃণমূল কোনওভাবে জড়িত নয় বলে দাবি করে কুণাল বলেছেন, ‘‌এইসব বড় বড় কথা দিলীপবাবু পরে বলবেন। সারদা–নারদায় শুভেন্দু অধিকারীর নাম রয়েছে। তিনি এসবের থেকে বাঁচতে বিজেপি–তে গিয়েছেন। দিলীপবাবু একজনকে গ্রেপ্তার করে দেখান না। বিজেপি হচ্ছে একটা সার্কাস পার্টি। আর উনি সেখানকার জোকার। উনি এসব বুঝবেন না।’ কুণালের আরও সংযোজন, ‘‌তৃণমূল তোলাবাজিকে অনুমোদন দেয় না। আমার সঙ্গে লেক থানার ওসি–র কথা হয়েছে। বলেছি, এখানে দল নাক গলাতে যাবে না। আপনারা নিরপেক্ষ তদন্ত করুন।’

 

আরও পড়ুন:‌ রাজনৈতিক সৌজন্য!‌ তৃণমূলের পতাকা কুড়িয়ে যথাস্থানে রেখে দিলেন বিজেপি সাংসদ 

আকর্ষণীয় খবর