পল্লবী ঘোষ: তখন বিকেল ৫টা। আকাশ ভেঙে হঠাৎ বৃষ্টি। তার মধ্যেই টালিগঞ্জের সাহা পাড়া মাঠের আশেপাশে ছাতা মাথায় দাঁড়িয়ে লোক। কেউ কেউ আবার বৃষ্টিতে ভিজেই ঠায় দাঁড়িয়ে ধন্যি মেয়েকে এক ঝলক দেখবেন বলে। বৃষ্টি একটু কমতেই হুড খোলা জিপে উঠলেন টালিগঞ্জের তৃণমূল প্রার্থী অরূপ বিশ্বাস। তারপর গাড়িতে উঠে সামনে এসে দাঁড়ালেন তিনি, ধন্যি মেয়ে। পরনে সাদা শাড়ি। যৎসামান্য গয়না। মাথায় দলের টুপি। মুখে মাস্ক। এই হয়তো প্রথম কোনও দলের প্রচারে প্রার্থী এবং তারকা-ক্যাম্পেনারকে কোভিডবিধি মানতে দেখা গেল। শুরু হল রোড শো। টালিগঞ্জের অলিগলিতে ঘুরছেন জয়া বচ্চন। গলির দু'ধারে কাতারে কাতারে লোক। যাঁরা রাস্তায় জায়গা পাননি, তাঁরা বাড়ির বারান্দায়, ছাদে, পাঁচিলে দাঁড়িয়ে। শুধু একবার জয়া বচ্চন তাকান তাঁদের দিকে, এইটুকুই ইচ্ছে। চতুর্দিকে 'খেলা হবে' স্লোগান। প্রথমদিনেই মিছিলের শুরু শেষ একবারে দেখা যাচ্ছে না। সন্ধে নামার পর আরও জমছে ভিড়। ঠায় দাঁড়িয়ে তিনি তখনও। একবারও মেজাজ হারালেন না। পাশ থেকে উলুধ্বনি, শাঁখের আওয়াজ, 'অরূপদা পাশে আছি' আওয়াজ। কেউ মালা নিয়ে ছুটে যাচ্ছেন, কেউ একতোড়া ফুল। সবটা দেখেই উচ্ছ্বসিত জয়া বচ্চন। তাঁর চোখ মুখ বলে দিচ্ছিল সেকথা। হয়তো মনে মনে ভাবছিলেন, 'এই যাত্রা সার্থক হল'! সমাজবাদী পার্টির রাজ্যসভার সাংসদ জয় বচ্চন।

এই প্রথম বাংলায় ভিন্ন দলের হয়ে প্রচারে নামলেন তিনি। লক্ষ্য একটাই, তৃতীয়বার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী পদে মমতা ব্যানার্জিকে দেখতে চান। এর আগেও কলকাতা ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে বেশ কয়েকবার অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে হাজির হয়েছিলেন তিনি। কখনও মমতা ব্যানার্জি নিজে ছুটে গিয়েছেন মুম্বইতে দেখা করতে। মমতা-জয়ার সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎকার সেভাবে কাউকেই আগে ভাবায়নি। অন্তত ভোটের প্রচারে মমতার পাশে জয়া বচ্চন দাঁড়াবেন, এ যেন কল্পনাতীত। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। এক ঝাঁক তারকা যোগ দিয়েছেন রাজনৈতিক শিবিরে। কেউ আবার দল বদলে অন্যদলে ভিড়েছেন। কিছুদিন আগে পর্যন্ত মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তীর রবিবাসরীয় ব্রিগেড মঞ্চে বিজেপিতে যোগদান ছিল সবচেয়ে বড় চমক। তার কিছুদিনের মধ্যেই তৃণমূলের প্রচারে জয়া বচ্চনের পা মেলানো যেন সবকিছুকে টেক্কা দিল। বিজেপি সমর্থকরা জানাচ্ছেন, মিঠুন চক্রবর্তীর প্রচার সকলের নজর কাড়ছে বলেই, শেষলগ্নে জয়া বচ্চনকে টেনে আনলেন তৃণমূলের সুপ্রিমো। আবার অন্যদিকে তৃণমূল কর্মীরা জানাচ্ছেন, জয়া বচ্চন আদ্যোপান্ত 'বাংলার নিজের মেয়ে'। ফলে তিনি বাংলায় এসে বাংলার আরও এক মেয়ের পাশে দাঁড়িয়েছেন এটাই কাম্য। সবমিলিয়ে ভোট-যুদ্ধ তৃতীয় দফার ভোটের আগে আরও খানিকটা জমে উঠেছে। প্রচারে ঝড় তুললেও, আদৌ সাধারণ মানুষের মন ছুঁতে পারলেন কি না, সেটা দেখার জন্য ২ মে'র দিকে তাকিয়ে সবাই। 

ছবি: পল্লবী ঘোষ 

জনপ্রিয়

Back To Top