আজকাল ওয়েবডেস্ক: পরিস্থিতি যাই হোক। ভরসা একমাত্র জনতা জনার্দন। মহানগরের সড়কে তাঁর একের পর এক রোড শো যেন জনতার মন ছুঁয়ে যাচ্ছে। একুশের নির্বাচনের তৃতীয় দফার ভোটের ঠিক আগে সমাজবাদী পার্টির সাংসদ ও বাংলার 'ধন্যি মেয়ে' জয়া বচ্চন পা রেখেছেন কলকাতায়। প্রথম দিন তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক বৈঠকের পর পৌঁছে গিয়েছিলেন টালিগঞ্জে। যেখান থেকে অভিনয় জীবনের শুরু সেখানেই প্রথম তৃণমূল প্রার্থী অরূপ বিশ্বাসের হয়ে প্রচার করেন তিনি। সাহা পাড়া মাঠ থেকে শুরু করে মোট তিনটি ওয়ার্ড তিনি ঘুরেছেন। দ্বিতীয় দিন পৌঁছে গেলেন দমদম পৌরসভার অন্তর্গত দমদম ক্যান্টনমেন্ট এলাকার গোরাবাজার অঞ্চলে। বিশিষ্ট নাট্যকার ও দমদমের তৃণমূল প্রার্থী ব্রাত্য বসুর সমর্থনে প্রচারে সাড়া ফেললেন তিনি। চড়া রোদে হুড খোলা গাড়িতে করে ঘুরলেন বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডও। টালিগঞ্জের মতোই দমদমেও এক দৃশ্য। যা দেখার পর রীতিমতো অস্বস্তিতে বিরোধী শিবিরের কর্মী-সমর্থকরা। রাজনৈতিক দল ভুলে, শুধু জয়া বচ্চনকে দেখার জন্য রাস্তায় নামে জনতার ঢল। শঙ্খধ্বনি, শাখের আওয়াজ ধ্বনিত হয় চতুর্দিকে। সবমিলিয়ে প্রার্থী ব্রাত্য বসু নিজেও ভীষণ উচ্ছ্বসিত। ব্রাত্যর কথায়, মহানগরের নায়িকা মহানগরে তাঁর পাশে রয়েছেন, এটাই সবচেয়ে আনন্দের। মানুষের উচ্ছ্বাস, সাড়া জানান দিচ্ছে 'বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়'। দেরিতে হলেও, জয়া বচ্চনের বিরুদ্ধে বিজেপি 'বহিরাগত' তকমা থেকে নানা শুরু করে নানা মন্তব্য করেছে। তবে কলকাতায় আসার দু'দিন পর্যন্ত বিজেপির কোনও প্রার্থী-নেতা কাউকেই সরাসরি কটাক্ষ করেননি জয়া। সংযত ভঙ্গিমায় গণতান্ত্রিক অধিকার বাঁচাতে মমতা ব্যানার্জিকে জয়যুক্ত করার আবেদন করেছেন সকলকে। 

জনপ্রিয়

Back To Top