আজকালের প্রতিবেদন: ফের পড়ুয়াদের ডাকে শহরে এনআরসি–বিরোধী মিছিল। মিছিলের সামনে জেএনইউ নেত্রী ঐশী ঘোষ। আর সেই মিছিলে পা মেলালেন বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্র, মনোজ ভট্টাচার্য–সহ বামফ্রন্টের শরিক দলের নেতারা। পা মেলালেন তরুণ মজুমদার, অনীক ঘোষ থেকে শুরু করে বাংলার বিশিষ্টরাও। কলেজ স্কোয়্যার থেকে মিছিল গেল শ্যামবাজার। দেশের সম্প্রীতি, ঐতিহ্য, ধর্মনিরপেক্ষতা বাঁচানোর দাবিতে নাগরিক পদযাত্রা— বিদ্যাসাগর থেকে নেতাজী। ঐশী ঘোষ মিছিলের ফাঁকে সাংবাদিকদের জানালেন, প্রতিষ্ঠান–বিরোধী কথা বললেই দেশবিরোধী তকমা এঁটে দিচ্ছে। পড়ুয়াদের ভয় পাচ্ছে এই বিজেপি–আরএসএস। তাই ছাত্রছাত্রীর ওপর ও কলেজ–বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এখন সবাই মিলে এই ফ্যাসিস্ট বিজেপি–র বিরুদ্ধে লড়াই করার সময়। আসুন আরও ঐক্যবদ্ধ হোন। বিজেপি, আরএসএস–কে সরাসরি বলুন, ওদের সাম্প্রদায়িক রাজনীতি আমরা মানি না। এদিনের মিছিলের উদ্যোক্তা এসএফআই–সহ রাজ্যের সমস্ত বামপন্থী ছাত্র সংগঠন। তবে কেউই সংগঠনের পতাকা নিয়ে আসেননি এই জনগণমন রালিতে। আক্ষরিক অর্থেই নাগরিক মিছিল। জাতীয় পতাকার সঙ্গে বিজেপি–র এনপিআর, এনআরসি–বিরোধী পোস্টার, ফেস্টুন নিয়ে মিছিলে এসেছিলেন।‌

জনপ্রিয়

Back To Top