আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ব্রিগেডে একই মঞ্চে জনসভা। সেই প্রথমবার প্রকাশ্যে জোটের বার্তা দেয় সিপিএম–কংগ্রেস–আইএসএফ। যদিও সেই জনসভার পর জোটের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেছিল। সেসব জল্পনাতেই জল ঢালল জোট। এবার মঞ্চ নয়, পথে নামছেন সংযুক্ত মোর্চার নেতারা। উদ্দেশ্য, জ্বালানি, রান্নার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ। 
শনিবার, ৬ মার্চ বিকেল সাড়ে তিনটে থেকে শুরু হবে মিছিল। এন্টালি মার্কেট থেকে মহাজাতি সদন পর্যন্ত হাঁটবেন বাম, কংগ্রেস এবং আইএসএফ নেতারা। শুধু পেট্রোল, ডিজেল, কেরোসিন, রান্নার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে এই প্রতিবাদ নয়, বেকারত্বের বিরুদ্ধেও প্রতিবাদ করবেন সংযুক্ত মোর্চার নেতা–সমর্থকরা। 
মোর্চার তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, ‘‌পেট্রোল–ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বেড়েছে হু হু করে। ২০১৪ সালে পেট্রোলের দাম ছিল লিটার প্রতি ৬৬ টাকা। ডিজেলের দাম ছিল ৪৮ টাকা। এখন তা যথাক্রমে ১০০ টাকা এবং ৯০ টাকা ছাড়িয়ে গেছে। রান্নার গ্যাসের দাম এই ক’‌বছরে প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেছে। এর ফলে বাজারে মাছ, মাংস, ভোজ্যতেল, ডিম, ডাল, মশলা সহ প্রায় সব কিছুর দাম বাড়ছে।’‌ 
এর পর বিবৃতিতে দেশে বেকারত্ব নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ‘‌একদিকে অর্থনৈতিক মন্দা ও মহামারী পরিস্থিতিতে মানুষ কাজ হারিয়েছেন, মজুরি হ্রাস পেয়েছে। এবং বেকারদের কাজের সুযোগ কমেছে। অন্যদিকে বাজারে মূল্যবৃদ্ধির কারণে মানুষ অসহনীয় পরিস্থিতির মধ্যে দিনযাপন করছেন।’‌
মহামিছিলে রাজ্যবাসীকে যোগ দেওয়ার জন্যও আবেদন জানিয়েছে মোর্চা। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, শুধু মোদি সরকারের নীতির বিরোধিতাই এই মিছিলের লক্ষ্য নয়। জোটের ভবিষ্যৎ নিয়ে যাঁরা প্রশ্ন তুলেছেন, তাঁদেরও জবাব দিতে চাইছে মোর্চা।
প্রসঙ্গত জোট নিয়ে কংগ্রেসের অন্দরেই কোন্দল শুরু হয়েছে। আনন্দ শর্মার মতো বিক্ষুব্ধ নেতারা রাজ্য কংগ্রেসকে আক্রমণ করেছেন। যদিও অধীর চৌধুরির পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রিয়াঙ্কা।

জনপ্রিয়

Back To Top