গৌতম রায়: সিপিএমের কলকাতা জেলা সম্মেলনে প্যানেল নিয়ে রাতভর ভোটাভু‌টি ও অনৈক্যের প্রদর্শন লজ্জাজনক গোষ্ঠীবাজি বলে নিন্দিত হল দলের রাজ্য কমিটির সভায়। এদিনের মূল আলোচ্য বিষয় ছিল রাজ্য সম্মেলনের খসড়া। তা নিয়েও বিতর্ক হয়েছে। কিন্তু শুরু থেকেই কলকাতা জেলায় প্যানেল বদল এবং সর্বসম্মতিক্রমে সম্পাদক বেছে নেওয়ার ব্যর্থতা নিয়ে অনেকেই সরব হন। 
নতুন জেলা সম্পাদক কল্লোল মজুমদারকে এ নিয়ে উত্তরও দিতে হয়। জলপাইগুড়ির সলিল আচার্য, হাওড়ার দিলীপ ঘোষ এবং উত্তরবঙ্গের প্রবীণ নেতা তারিণী রায় এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন। তারিণীবাবু  বলেন, বর্তমানে যখন বিরোধীরা কমিউনিস্ট পার্টি ও বামপন্থাকে পেছনে হটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে, কলকাতা জেলার এই কাণ্ডকারখানা তাদের মদত দিল। এবার সিপিএমের জেলা সম্মেলনপর্বে কোথাও এমনকী বর্ধমানের দুটি জেলা কমিটিতে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট নিয়ে দলের মধ্যে তীব্র মতভেদ থাকলেও ভোটাভুটি হয়নি। বেশ কয়েকজন সদস্য এদিক থেকেও কলকাতা জেলাকে ব্যতিক্রম বলেন। স্বভাবত বিনয়ের সঙ্গে এর জবাব দেন কলকাতা জেলার নতুন সম্পাদক কল্লোল মজুমদার। সিপিএমে সম্মেলনে ভোটাভুটি কিন্তু দলের সংবিধানসম্মত। তবু পুরনো মানসিকতায় একে ভাল চোখে দেখা হয় না। কল্লোল সে–কথার উল্লেখ করে একে খারাপ নজিরই বলেন। তিনি জানান, ভোটাভুটি এড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছিল, কিন্তু সম্ভব হয়নি। ১৯৯৮ সালে সিপিএম জেলা সম্মেলনে যে নজিরবিহীন কাণ্ড ঘটেছিল, তিনি তার উল্লেখও করেন। সেবার গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে দীর্ণ কলকাতা জেলার ভোটে রবীন দেব, মানব মুখার্জি এবং আরও অনেকে জেলা কমিটি থেকে বাদ পড়েন। 
পরে মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর হস্তক্ষেপে তাঁদের জেলায় কো–অপ্ট করা হয়। এরপরে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে পার্টির কাজ চালানো অসম্ভব হয়ে পড়ে। কল্লোল এর উল্লেখ করে বলেন, কথা দিচ্ছি সে–ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না। ঐক্যই সব থেকে গুরুত্ব পাবে।
রাজ্য সম্মেলনের খসড়াটি পেশ করলে বর্ধমানের কংগ্রেসের সঙ্গে জোটপন্থী নেতা বংশগোপাল চৌধুরি–সহ অনেকে গত বিধানসভা ভোটে জোটের কথা অনুল্লিখিত রাখার জন্য রাজ্য নেতৃত্বের সমালোচনা করেন। এঁদের বক্তব্য, গত বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে নিচুতলার চাপে জোট হয়েছিল। সে–কথা না বলে খসড়ায় ‘‌যেখানে পার্টি বা বামফ্রন্টের জয়ের সম্ভাবনা কম, সেখানে কংগ্রেসকে সমর্থন করা হয়েছে’‌ বলে লেখা হয়েছে। তা বাদ দিয়ে স্পষ্টভাবে জোটের কথা বলতে হবে। কলকাতা জেলার প্রাক্তন সম্পাদক নিরঞ্জন চ্যাটার্জি, বর্ধমানের জেলা সম্পাদক অচিন্ত্য মল্লিক এদিনও জোটের তীব্র বিরোধিতা করেন।

জনপ্রিয়

Back To Top