আজকালের প্রতিবেদন
রাজ্যে করোনা মোকাবিলায় ‌১২ চিকিৎসকের কমিটি নিয়ে শনিবার জরুরি বৈঠক হয় স্বাস্থ্যভবনে। করোনা–‌আক্রান্ত ও সন্দেহভাজনদের চিকিৎসায় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের ব্যবস্থা নিয়েও জরুরি পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। সোমবার থেকে কলকাতা মেডিক্যালে শুরু হচ্ছে করোনা–‌আক্রান্তদের চিকিৎসা। তাঁরা প্রস্তুত। বিভিন্ন জায়গা থেকে সঙ্কটজনক রোগীদের পাঠানো হলে ভর্তি করবে কলকাতা মেডিক্যাল। সব হাসপাতালে কী কী সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা রাখতে হবে সেই সমস্ত বিষয়ে একগুচ্ছ আলোচনা হয় এদিনের বৈঠকে। 
কলকাতা মেডিক্যালে ৩০০ শয্যার সুপারস্পেশ্যালিটি ব্লকে শুরু হচ্ছে করোনা চিকিৎসা।  শনিবার দফায় দফায় চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশাসনিক ভবনে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। কীভাবে নিজস্ব সুরক্ষাবিধি মেনে রোগীদের সামলাতে হবে। কীভাবে সাবধানতা অবলম্বন করে নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য পাঠাতে হবে প্রভৃতি বিষয়ে সচেতনতার পাঠ দেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতালের সুপার ডাঃ ইন্দ্রনীল বিশ্বাস বলেন, ‘‌সোমবার থেকে রোগী পাঠালে আমরা ভর্তি নেব। আমাদের বেড, ভেন্টিলেটর–‌সহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে জায়গা তৈরি। যখন আমাদের নির্দেশ দেবে তখন সরাসরি রোগী ভর্তি করব।’‌ আগামী দিনে হাসপাতালের অন্যান্য বিভাগেও চিকিৎসা শুরু হবে। ইতিমধ্যেই অধিকাংশ রোগীকে স্থানান্তর করা হয়েছে। তিন হাজার শয্যাও আগামী দিনে চালুর সম্ভাবনা রয়েছে।  
করোনা মোকাবিলায় আরও কী কী সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া যায় সেই বিষয়ে স্বাস্থ্যভবনে চিকিৎসক কমিটি প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেন। কমিটির এক সদস্য জানান, করোনা পরীক্ষা করানোর ব্যবস্থা যাতে আরও বাড়ানো যায়, সব মেডিক্যাল কলেজে সুরক্ষা বিধি মানার জন্য পিপিই কিট  পর্যাপ্ত সংখ্যায় যাতে সরবরাহ হয়, আক্রান্তদের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছিলেন তাঁদের কত দ্রুত চিহ্নিত করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া যায় প্রভৃতি বিষয়ে আলোচনা হয়। মেডিক্যাল কলেজের তিন হাজার শয্যা চালুর পরও যদি তা ভর্তি হয়ে যায় সেক্ষেত্রে বিকল্প কী ব্যবস্থা নেওয়া যায় সেই বিষয়েও আলোচনা হয়। এদিন স্বাস্থ্যভবন থেকে ৩৪ জন চিকিৎসকের টিম মিলে বাসে করে রওনা দেন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে। ‌

জনপ্রিয়

Back To Top