আজকালের প্রতিবেদন: রাজ্যপাল ও রাজ্য সরকারের বিরোধে বৃহস্পতিবার রাজ্যপাল অত্যন্ত কটু মন্তব্য করলেন। রাজ্য সরকারও পাল্টা কড়া জবাব দিল। রাজ্যপাল সরকারের মন্ত্রীদের নোংরা মুখ পরিষ্কার করতে বলেন।  তৃণমূলের মহাসচিব শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি তঁার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ওঁর বয়স হয়েছে। উনি সব মনে রাখতে পারেন না। 
বৃহস্পতিবার ডায়মন্ড হারবারে রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর একটি অনুষ্ঠান ছিল। অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘‌অনেক তিক্ত কথাবার্তা হয়েছে। এবার রাজ্যপালের অফিসের দিকে কাদা ছোঁড়া বন্ধ হোক।’‌ রাজ্যপাল তঁার ‘‌নিজের সরকার’‌ সম্পর্কে বলেন, ‘‌ওঁরা ওয়াশরুমে গিয়ে আয়নায় নিজেদের মুখ দেখুন। মুখে নোংরা লেগে আছে। নোংরা আগে পরিষ্কার করা দরকার।’‌ 
এ ধরনের কটু কথা শোনার পর রাজ্যের মন্ত্রীরা রাজ্যপাল সম্পর্কে তীব্র প্রতিক্রিয়া দিলেন।  
পার্থ চ্যাটার্জি বিধানসভা ভবনে তঁার ঘরে বসে বলেন, ‘‌রাজ্যপালের আসনটা অত্যন্ত পদমর্যাদাসম্পন্ন। তিনি সাংবিধানিক প্রধান। সংবিধান রক্ষা করার দায়িত্ব তাঁর। উনি বয়স্ক মানুষ। বয়সের ভারে তিনি সব মনে রাখতে পারছেন না। নানা সময় নানা কথা বলছেন। বিতর্কে জড়িয়ে লাভ নেই।’‌ 
পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‌রাজভবন থেকে এ ধরনের কথা বলা হলে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর ক্ষতি হয়। তিনি আয়নায় মুখ দেখতে বলছেন। কিন্তু বিভিন্ন রাজ্যে বিজেপি যে ধরনের কাজ করছে তা কি তিনি দেখতে পাচ্ছেন?‌ সুপ্রিম কোর্ট, হাইকোর্ট, রাষ্ট্রপতি, রাজ্যপাল— এ সবই রাজনীতির ঊর্ধ্বে। তাঁরা নিজেদের সম্মান রাখলে পদের উচ্চতা বাড়বে। কেন্দ্রীয় সরকার এ ধরনের পদগুলিকে পার্টি অফিসে পরিণত করেছে।’‌
বৃহস্পতিবার ডায়মন্ড হারবার মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনে আচার্য রাজ্যপাল উপস্থিত ছিলেন।

জনপ্রিয়

Back To Top