আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ একরত্তি শিশু। বয়স মাত্র ২ বছর ৪ মাস। কথা বলায় সমস্যা থাকায় মা–বাবা তাকে  নিয়ে গিয়েছিল স্পিচ থেরাপির জন্য। কিন্তু সেখানে গিয়েই ভয়াবহ অভিজ্ঞতার সাক্ষী থাকল একরত্তি শিশুটি। থেরাপির নামে তাকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল ওই সেন্টারের স্পিচ থেরাপিস্ট চৈতালি মুখার্জির বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যে তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। এদিকে, খোঁজ নেই সেন্টারের কর্ণধারের। গত ১৪ মে ঘটনাটি ঘটে। দীর্ঘদিন ধরে কথা বলার সমস্যা থাকায় সন্তানকে নিয়ে ওই সেন্টারে গিয়েছিলেন অভিযোগকারী মা–বাবা। কিন্তু বদ্ধ ঘরে থেরাপির নাম করে শিশুটিকে মারধর করতে থাকে ওই স্পিচ থেরাপিস্ট।বুকের উপর বসে তাকে মারাও হয়। আর এতেই মাথা ফেটে যায় শিশুটির।  এমনকি ছুড়ে ফেলে দেওয়া হয় শিশুটিকে।  এরপরই পুলিসে অভিযোগ জানায় ওই দম্পতি। পুলিস এসে সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে। আর তাতেই চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় তাঁদের। দেখা যায়, শিশুটিকে নির্মমভাবে নির্যাতন করছে ওই থেরাপিস্ট। এরপরই তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিস। সংস্থার কর্ণধারের খোঁজেও চলছে তল্লাশি। 

জনপ্রিয়

Back To Top