প্রিয়দর্শী বন্দ্যোপাধ্যায়: ভ্যানিশিং কালির জাদুতে ব্যবসায়ীর অ্যাকাউন্ট থেকে ‘‌ভ্যানিশ’‌ লক্ষাধিক টাকা। গোলাবাড়ি থানার কিংস রোডের দেবেন্দ্র জয়সোয়াল নামের এক ছাঁট লোহার ব্যবসায়ী এই প্রতারণার শিকার। ব্যাঙ্ক থেকে লোন পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে গোলাবাড়ির এক ব্যবসায়ীর অ্যাকাউন্ট থেকে ১ লক্ষ ৮৫ হাজার টাকা গায়েব করল প্রতারকরা।  অভিযোগ দায়ের হয়েছে থানায়। একই সঙ্গে ঘটনার তদন্তে হাওড়া পুলিস কমিশনারেটের গোয়েন্দারাও। 
জানা গেছে, ২৪ জানুয়ারি ওই ব্যবসায়ীকে ফোন করে একটি বেসরকারি ব্যাঙ্ক থেকে লোন পাইয়ে দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়। সেই ব্যাঙ্কেই তাঁর অ্যাকাউন্ট থাকায় তিনি ওই প্রস্তাবে সম্মতি জানিয়ে লোন নিতে রাজি হন। সেদিন এক তরুণী কিংস রোডে তাঁর অফিসে আসে। এরপর তাঁর কাছ থেকে প্যান কার্ড, আধার কার্ড, ব্যাঙ্কের পাশবইয়ের কপি–সহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করে। সেই সঙ্গে তাঁর কাছ থেকে দু‌টি ক্যানসেল্‌ড চেক সই করিয়ে নিয়ে যায় ওই তরুণী। এমনকী ‘ক্যানসেল্‌ড‌’ কথাটা ওই তরুণী নিজের পেন দিয়ে তাঁর সামনেই চেকে লিখে দেয়। কিন্তু তার পরের দিনই তিনি মোবাইলে মেসেজ পান, তাঁর অ্যাকাউন্টা থেকে ১ লক্ষ ৮৫ হাজার টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে। 
এরপরই তিনি দ্রুত সালকিয়ায় ওই ব্যাঙ্কের শাখায় ছুটে যান। জানতে পারেন, ওই ব্যাঙ্কের পিকনিক গার্ডেন শাখা থেকে অমৃত রাজ নামে এক ব্যক্তি ওই চেক ভাঙিয়ে টাকাটা তুলে নিয়েছে। হাওড়া সিটি পুলিসের এক কর্তা জানান, ‘ভ্যানিশিং কালির পেন দিয়ে প্রতারকরা ওই ব্যবসায়ীর চেকে ক্যানসেল্‌ড কথাটা লিখেছিল। ফলে কিছুক্ষণ পরেই ক্যানসেল্‌ড লেখাটা মুছে যায়। যার ফলে সহজেই প্রতারকের দল সেই চেক ভাঙিয়ে ওই ব্যবসায়ীর অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিয়েছে।’ 
কয়েক বছর আগেও উত্তর হাওড়া এবং শিবপুরে একই কায়দায় ভ্যানিসিং কালি ব্যবহার করে বিভিন্ন জনকে লোন পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছিল। সেক্ষেত্রে প্রতিবারই অপরাধের ধরন ছিল একইরকম। 

জনপ্রিয়

Back To Top