আজকালের প্রতিবেদন: আধুনিক চার্টার্ড বিমান ভাড়া নেওয়ার জন্য দরপত্র ডাকল রাজ্য সরকার। ৭ থেকে ৯ জন যাত্রী বহন করতে পারে এরকম দুই ইঞ্জিনের সিক্স উইং উড়ান ভাড়া নিতে চায় রাজ্য সরকার। মাসে ৭৫ ঘণ্টার জন্য ওই বিমানের ভাড়া দেবে সরকার। তার চেয়ে বেশি সময় বিমান চললে অতিরিক্ত ভাড়া দেওয়া হবে। পরিবহণ দপ্তরের প্রাইম ট্রেনিং ইনস্টিটিউট এই দরপত্র ডেকেছে। ৬ জুলাই থেকে অনলাইনে দরপত্র জমা নেওয়া হবে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বেহালা, মালদা, কোচবিহার বিমানবন্দরে হাজার মিটার রানওয়েতে ওঠানামা করতে পারবে এমনই বিমান প্রয়োজন। এবং অবশ্যই যে সংস্থা এই বিমান ভাড়া দেবে, সেই সংস্থার কেন্দ্রীয় অসামরিক প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের অনুমোদন থাকা দরকার। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ভিভিআইপি–দের আকাশপথে উড়ানে বিশেষ প্রশিক্ষণ থাকতে হবে চালকের। অন্তত ৪ জন যাত্রী যাতে ভালভাবে বসতে পারে সেই ব্যবস্থা থাকতে হবে। যে কোনও আবহাওয়ায় নিরাপদে বিমানচালনায় দক্ষ হতে হবে চালককে। প্রসঙ্গত, সাধারণ মানুষও এই বিমানে চেপে রাজ্যের অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দরগুলিতে যাতায়াত করতে পারবেন। কোচবিহার বিমানবন্দর ইতিমধ্যেই তৈরি হয়ে গেছে। বালুরঘাট ও মালদা প্রায় তৈরি। পুরুলিয়ায় ছরড়া বিমানবন্দর নতুন করে তৈরি করা হচ্ছে। রাজ্য সরকার চায় ছোট চার্টার্ড বিমান ভাড়া নিয়ে এই বিমানবন্দরগুলির মধ্যে যোগাযোগ তৈরি করতে। পাশপাশি, রাজ্যপাল, মুখ্যমন্ত্রীর মতো ভিভিআইপি–রা প্রশাসনের কাজের জন্য যাতে এই বিমান ব্যবহার করতে পারে, সেই বিষয়টিও দেখা হচ্ছে। ‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top