Partha Chatterjee: ‌‌২১ সেপ্টেম্বর অবধি সিবিআই হেফাজতে পার্থ ও কল্যাণময়, দু’‌জনকে মুখোমুখি জেরার সম্ভাবনা

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ২১ সেপ্টেম্বর অবধি সিবিআই হেফাজতে থাকবেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়।

এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এই রায় দিল আদালত। পার্থ এতদিন জেল হেফাজতে ছিলেন। মামলার তদন্তের স্বার্থে সিবিআই তাঁকে নিজেদের হেফাজতে নিতে চেয়ে আলিপুর আদালতে আবেদন জানিয়েছিল। আদালতে সিবিআইয়ের আইনজীবী জানান, নিয়োগ দুর্নীতিতে মাস্টারমাইন্ড পার্থই চট্টোপাধ্যায়। কারণ নিয়োগ দুর্নীতির সময় তিনিই ছিলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী। শুক্রবার শুনানিতে সেই আবেদন মঞ্জুর করেন বিচারক। এরপরই ২১ তারিখ পর্যন্ত পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সিবিআই হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। একই মামলায় পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়কে বৃহস্পতিবার সন্ধেবেলা গ্রেপ্তার করেছিল সিবিআই। শুক্রবার তাঁকে আদালতে পেশ করা হলে ২১ তারিখ পর্যন্ত সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ২১ সেপ্টেম্বর হবে পরবর্তী শুনানি।
শুক্রবার পার্থকে সশরীরে হাজির করানো হয় আদালতে। এজলাসে পার্থের ঠিক পাশেই বসেছিলেন সিবিআইয়ের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া মধ্যশিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়। শুনানিতে পার্থের আইনজীবী বলেন, তাঁর মক্কেল জেল হেফাজতেই রয়েছেন। তাই আলাদা করে তাঁকে সিবিআই গ্রেপ্তার কেন করবে?‌ সিবিআইয়ের আইনজীবী জানান, এসএসসি দুর্নীতি মামলায় যে পাঁচজনের নামে এফআইআর হয়েছিল, তাঁদের মধ্যে তিনজনকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সিবিআইয়ের দাবি, নিয়োগ দুর্নীতিতে পার্থই মাস্টারমাইন্ড। এদিকে আইনজীবীর মাধ্যমে কল্যাণময় বলেন, ‘‌২০১৮ সাল থেকে কোনও নিয়োগপত্রে আমি সই করিনি। সই নকল করা হয়েছে।’ দুই পক্ষের সওয়াল জবাব শেষে ২১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। খারিজ হয়ে যায় পার্থর জামিনের আবেদন। সিবিআই এবার দু’‌জনকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করতে পারে। 

আরও পড়ুন:‌ বেজোসকে টপকে বিশ্বের দ্বিতীয় ধনীতম ব্যক্তি গৌতম আদানি

আকর্ষণীয় খবর