আজকাল ওয়েবডেস্ক: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ইতিমধ্যেই টালমাটাল পরিস্থিতি সারা দেশে। বাংলাতেও ক্রমশ বাড়ছে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা। আর তার জেরেই রাস্তায় বাস চললেও যাত্রীদের দেখা মিলছে না। এহেন পরিস্থিতিতে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে বাস মালিকরা। আর্থিক দিক দিয়ে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছেন বাস চালক, কন্ডাক্টররা। করোনা কালে নিত্যযাত্রীদের কথা ভেবে এখনই বাস ভাড়া বাড়াতে নারাজ তাঁরা। বিকল্প ভাবনা বাস মালিকরা ভেবে রেখেছেন। আর সেই ভাবনা কথাই এবার চিঠি লিখে মুখ্যমন্ত্রীকে জানালেন তাঁরা। পশ্চিমবঙ্গ বাস এবং মিনিবাস মালিক সংগঠনের পক্ষ থেকে চিঠিটি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সংগঠনের সম্পাদক প্রদীপ নারায়ণ বসু বলেন, ‘ভাড়া আমরা বাড়াতে চাই না। বিকল্প ভাবনা হিসেবে আমরা মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠিতে জানিয়েছি জ্বালানিকে জিএসটির অন্তর্গত করার বিষয়ে সমর্থন দেওয়ার জন্য। জ্বালানি জিএসটির অন্তর্গত হলে দাম অনেক কমবে। ফলে আমাদের বাস মালিকদের খরচও কমে যাবে। কেন্দ্র যাতে আমাদের এই দাবিকে মান্যতা দেয় তার জন্য আমরা আন্দোলনে সামিল হচ্ছি। গান্ধীমূর্তির পাদদেশে আগামী ১৭ মে ধর্নায় বসছি। আমরা আশা করছি মুখ্যমন্ত্রী আমাদের দাবিকে সমর্থন দেবেন এবং কেন্দ্রের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমাদের পাশে থাকবেন। মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদও জানিয়েছি চিঠিতে। কারণ মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী করোনা টিকাকরণের ক্ষেত্রে গণপরিবহনের সঙ্গে যুক্ত শ্রমিকদের অগ্রাধিকার দিয়েছেন। উনি আমাদের কথা ভাবার জন্য আমরা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ।’ এখন দেখার বাস মালিক সংগঠনের চিঠি পেয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি তাঁদের পাশে দাঁড়িয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামেন কিনা।

জনপ্রিয়

Back To Top