উদয় বসু—গান্ধীজয়ন্তীর সকালে দমদম নাগেরবাজারের কাজিপাড়ার ভয়ঙ্কর বোমা বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছিল গোটা এলাকা। জঙ্গিহানার মতো কিছু হয়েছে মনে করে যে যেদিকে পেরেছেন দৌড়েছিলেন সেদিন। সংবিৎ ফিরতেই দেখা যায়, একরত্তি শিশু বিভাস ঘোষ–সহ ১১ জন রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে কাতরাচ্ছে। এলাকার যুবকেরাই এগিয়ে এসে তাদের সকলকে হাসপাতালে তুলে নিয়ে যান। কিন্তু বাঁচানো যায়নি বিভাসকে। আহতদের চিকিৎসা চলছে। সিআইডি তদন্ত শুরু করেছে। বিভাসের মা গুরুতর আহত অবস্থায় হাস্পাতালে ভর্তি। ২ অক্টোবর সকালের ঘটনা ঘটে। তিনদিন পরে ছিল বিভাসের জন্মদিন। বিভাসের মা তাকে জন্মদিনের নতুন জামা কিনে দেওয়ার কথা বলেছিলেন। তিনি কাজ সেরে ওকে নিয়ে একটি মিষ্টির দোকান থেকে মিষ্টিও কেনেন। ৭ বছরের ছেলে বিভাসের মুখে মিষ্টি তুলে দিতেই প্রচণ্ড শব্দে ফলের দোকানের পাশে রাখা বোমাটি ফেটে যায়।
বিভাসের বাবা মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে দেখা করেন। মুখ্যমন্ত্রী বিভাসের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা এবং আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে চেক দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে সেই সমস্ত চেক তাদের 
পরিবারের হাতে তুলে দেন দক্ষিণ দমদম পুরসভার পুরপ্রধান পাচু রায়। পুরসভার পক্ষ থেকেও ২৫ হাজার টাকার চেক দেওয়া হয়।

জনপ্রিয়

Back To Top