আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ তিনি শারীরিকভাবে সুস্থ নন। এই কারণ দেখিয়ে সিআইডির হাজিরা এড়িয়ে গেলেন প্রাক্তন আইপিএস ভারতী ঘোষের স্বামী এম এভি রাজু। বুধবারই ভারতীর স্বামীকে ভবানী ভবনে দুুপুর ১২টার সময় হাজির হতে বলেছিল সিআইডি। কিন্তু রাজুর আইনজীবী জানিয়েছেন, তাঁর মক্কেল সুস্থ নন। হাসপাতালে ভর্তি তিনি। এই অবস্থায় হাজিরা দেওয়া সম্ভব নয়। অর্থাৎ সযত্নে হাজিরা পর্ব এড়িয়ে গেলেন ভারতীর স্বামী। এদিকে আজই ভারতীর মাদুরদহের ফ্ল্যাটে হাজির হয়েছে সিআইডি। এদিন ফ্ল্যাটে সঙ্গে করে নিয়ে আসা হয়েছে ভারতীর বাংলোর কেয়ারটেকারকেও। গোয়েন্দাদের সূত্রে খবর, এই ফ্ল্যাটগুলিতেও হাজার হাজার টাকা লুকিয়ে রাখা হতে পারে। শুধু টাকা নয়, বেশ কিছু সোনাদানাও পাওয়া যেতে পারে এই ফ্ল্যাটগুলি থেকে। মাদুরদহে ভারতীর মোট ৫টি ফ্ল্যাট রয়েছে। যে পাঁচটিতেই এদিন তল্লাশি চালাবে সিআইডির একটি বড় দল। এখন দেখার, নতুন করে এই ফ্ল্যাটগুলি থেকে নতুন করে কী উদ্ধার করা যায়। অতি সক্রিয় সিআইডি। এই অভিযোগে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন প্রাক্তন আইপিএস ভারতী ঘোষের স্বামী এম এভি রাজু। তারপরই রাজুকে তলব করেছিল সিআইডি। বুধবার দুপুর ১২টার মধ্যে ভবানী ভবনে তাঁকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন গোয়েন্দারা। হাজিরা এড়ালে গ্রেপ্তার হতে পারেন ভারতীর স্বামী। অসুস্থ হয়ে পড়ায় এ যাত্রায় হয়ত গ্রেপ্তারি এড়িয়ে যেতে পারেন ভারতীর স্বামী। 
মঙ্গলবার ভারতী ঘোষের মাদুরদহের ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালিয়ে প্রায় আড়াই কোটি টাকার হদিশ পান গোয়েন্দারা। মঙ্গলবারই আনন্দপুর থানায় সিআইডি কর্তাদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন ভারতী ঘোষের স্বামী। অভিযোগ করেন, ‘‌আগাম খবর না দিয়েই সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে সিআইডি তল্লাশি চালিয়েছে।’‌ রাতে ভারতী ঘোষ অডিও বার্তায় জানান, ‘১ ফেব্রুয়ারি থেকে সিআইডি মাদুরদহে আমার ফ্ল্যাটের সামনে ক্যাম্প করে বসেছিল। তখনই তো তল্লাশি করতে পারত। তা না করে মঙ্গলবার কেন করা হল জানি না।’‌ 

জনপ্রিয়

Back To Top