আমরা আইনত গোলপার্কের ফ্ল্যাটের ভাড়াটে, ভাড়া পাঠিয়েছিলাম কিন্তু কেউ নেননি, দাবি বৈশাখীর

আজকাল ওয়েবডেস্ক: আইনসম্মত ভাবেই গোলপার্কের ফ্ল্যাটের রয়েছেন শোভন-বৈশাখী, এমনটাই দাবি করলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি গোলপার্কের ফ্ল্যাট ছাড়ার জন্য নোটিশ দেয় ওই ফ্ল্যাটের মালিক রত্না চট্টোপাধ্যায়ের ভাই তথা শোভন চ্যাটার্জির শ্যালক। গত কয়েকদিন আগে রত্নার বাবা তথা মহেশতলার তৃণমূল বিধায়ক দুলাল দাস তাঁর ছোট ছেলে শুভাশীষ দাসের সংস্থা স্টারমার্ক কনস্ট্রাকশন প্রাইভেট লিমিটেডের মাধ্যমে ফ্ল্যাট ছাড়ার নির্দেশ দেন। তারপর ফের আরও একবার নোটিস দেওয়া হল শোভন-বৈশাখী। আর এরপরই প্রতিক্রিয়া দিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

 

 

তিনি বলেন, ‘ওঁরা আমাদের এই ফ্ল্যাট থেকে উচ্ছেদ করার জন্যই এসব করছেন। আমরা আইনি পথে এগোব। আমরা এখানে যত বছর ধরে রয়েছি আইনসম্মতভাবে রয়েছি। আমাদের কাছে তার বৈধ নথিপত্রও রয়েছে। আমরা যত বছর এই ফ্ল্যাটে আছি ভাড়াটিয়া হিসেবে রয়েছি। সেই ভাড়া পাঠিয়েছি কিন্তু ওঁরা নেননি। তবে ব্যাঙ্ক ট্রান্সফার করেছেন না সরাসরি টাকা পাঠিয়েছেন তা নিয়ে খোলসা করে কিছু বলেননি বৈশাখী।

এর আগে যে নোটিস পাঠানো হয়েছিল তার পাল্টা একটি চিঠি দেন শোভন-বৈশাখী। রত্না কোন অধিকারে বেহালার বাড়িতে রয়েছেন সাত দিনের মধ্যে দুলাল দাসের কাছ থেকে জবাব চান শোভন-বৈশাখী। তার জবাব দেওয়া হয়েছিল বলে দাবি করেন দুলাল। কিন্তু শোভন-বৈশাখীর তরফ থেকে আর কোনও উত্তর না আসায় ফের একবার নোটিস পাঠানো হয়েছে বলে জানান দুলালবাবু।