আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌  বৃহস্পতিবার সকালেও বাগবাজারের পুড়ে যাওয়া বস্তি থেকে ধোঁয়া বেরোতে দেখা যায়। তার মধ্যেই সকালের আলোয় ভস্মীভূত ধ্বংসস্তুপ থেকে নিজেদের শেষ সম্বল আতিপাঁতি করে খুঁজতে শুরু করেন বস্তিবাসীরা।

গৃহহীন বস্তিবাসীদের বাগবাজার উইমেন্স কলেজ এবং স্থানীয় কমিউনিটি হলে আপাতত আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। বুধবারের অগ্নিকাণ্ডে ভস্মীভূত হয়েছে শতাধিক ঝুপড়ি। কমপক্ষে ৭০০ জন বাসিন্দা সহায়সম্বলহীন হয়ে পড়েছেন। আগুনে পুড়ে গিয়েছে ১২২ বছরের পুরনো ‘‌উদ্বোধন’‌ পত্রিকার অফিস।

পুড়ে ছাই বহু দুর্মূল্য নথিপত্র। বাগবাজারে সারদা মায়ের বাড়ির একাংশও ভস্মীভূত। আগুন নেভাতে গিয়ে কয়েকজন দমকলকর্মী অগ্নিদগ্ধও হন। তবে ঘটনায় কেউ মারা যাননি। ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে সরকারের কাছে বস্তিবাসীদের সাহায্যের আবেদন করে প্রদেশ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, ইচ্ছা করে আগুন লাগানো হয়ে থাকলে তার তদন্ত করতে হবে।

জনপ্রিয়

Back To Top