আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বাগবাজারের ঘাটে উদ্ধার হওয়া যুবকের সেলাই করা মৃতদেহকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য মিলল।ওই যুবকের মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করা হয়েছিল সাত দিন আগেই। ফলে মৃতদেহের শরীরে যে গলা থেকে পেট পর্যন্ত সেলাইয়ের চিহ্ন রয়েছে সেটি প্রথম ময়নাতদন্তের সময় কোনও চিকিৎসকের হাতেই হয়েছিল। দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের পর একথা জানতে পেরেছে কলকাতা পুলিশ। কিন্তু ময়নাতদন্তের পর কেন দেহটি জলে ফেলে দেওয়া হয়েছিল তা নিয়ে ধন্দে পুলিশ। শহর এবং সংলগ্ন অঞ্চলের মর্গেও এব্যাপারে খোঁজখবর করছে  পুলিশ। কিন্তু পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, একবার ময়নাতদন্ত হয়ে যাওয়ায় দ্বিতীয়বারে যুবকের মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট করে বলা সম্ভব নয়।
বাগবাজার ঘাটে মঙ্গলবার সকালে এক অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের গলা থেকে পেট পর্যন্ত কাটার পর দক্ষ হাতে সেলাই করা মৃতদেহ উদ্ধার হওয়ায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল। সম্পূর্ণ নগ্ন মধ্যবয়স্ক ওই যুবকের মৃতদেহটি গঙ্গার পলিমাটিতে মাখামাখি হয়েছিল। তা দেখে পুলিশ প্রাথমিকভাবে অনুমান করেছিল, সম্ভবত, দেহটি জলের তলায় পাঁকে আটকে যায়। পরে ভেসে ওঠে।        

জনপ্রিয়

Back To Top