‌আজকালের প্রতিবেদন: নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জিকে ডিলিট দেবে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। ২৮ জানুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠান। ওই অনুষ্ঠানেই নোবেলজয়ীকে এই সম্মান জানাবে বিশ্ববিদ্যালয়। বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নোবেল–‌জয়ের পরে পরেই অক্টোবরের শেষে কলকাতায় এসেছিলেন অভিজিৎ। তখন উপাচার্য সোনালি চক্রবর্তী ব্যানার্জির সঙ্গে তাঁর ফোনে কথা হয়। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় তাঁকে ডিলিট দিতে চায়, অভিজিৎকে জানিয়েছিলেন উপাচার্য। তখন সম্মতি দিয়েছিলেন তিনি। উল্লেখ্য, উপাচার্য সোনালি ‌‌অভিজিতের কলেজের বন্ধুও বটে, তখনকার প্রেসিডেন্সি কলেজে তাঁরা একসঙ্গে পড়তেন। সোনালির বিষয় অবশ্য ছিল রাষ্ট্রবিজ্ঞান। এদিন উপাচার্য জানান, ‘‌অভিজিৎ ২৮ জানুয়ারি কলকাতায় আসতে পারবেন বলে জানিয়েছেন। তাই আমরা ওইদিনটি বেছে নিয়েছি। ‌এরপর সেনেট বৈঠক ডেকে বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে।’‌
এদিন বিভিন্ন কলেজের তৃতীয় সেমেস্টারের পড়ুয়ারা পরীক্ষার দিন পিছনোর দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখান। ১১ ডিসেম্বর থেকে পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা। কিন্তু পড়ুয়াদের বক্তব্য, পুজোর ছুটি ছিল, ক্লাস হয়নি, লাইব্রেরিতে বই নেই, তাই তাঁরা পড়াশোনা করতে পারেননি। এ নিয়ে উপাচার্য বলেন, ‘‌প্রথম ও তৃতীয় এবং দ্বিতীয় ও চতুর্থ সেমেস্টার একসঙ্গে হয়। তাই এভাবে একটা সেমেস্টার পিছলে বাকিগুলোও পিছতে হবে। তাতে যারা স্নাতোকোত্তর পড়তে বাইরে যায়, তারা সমস্যায় পড়বে। কয়েকজন পড়ুয়ার পড়া হয়নি বলে সেটা সম্ভব নয়। আমার সঙ্গে চারজন পড়ুয়া দেখা করতে এসেছিল। আমি তাদের বিষয়টি বুঝিয়ে বলেছি। আর কলেজে ক্লাস না হওয়া, লাইব্রেরিতে বই না থাকার ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু করার নেই। এটা দেখবে কলেজ কর্তৃপক্ষ বা পরিচালন সমিতি।’‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top