আজকাল ওয়েবডেস্ক: যাদবপুর এলাকার এটিএম থেকে উধাও হয়ে যাচ্ছে হাজার হাজার টাকা। গ্রাহকদের কাছেই রয়েছে এটিএম কার্ড। কিন্তু ফোনে মেসেজ ঢুকছে, ‘‌এত হাজার টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে।’‌ এখনও অব্দি বোঝা যাচ্ছে অপরাধীরা স্কিমারগুলো খুলে নিয়ে চলেও গেছে। কীভাবে হচ্ছে এই এটিএম কাণ্ড?‌ আর এর থেকে কীভাবে বাঁচবেন গ্রাহকেরা?‌ উত্তর দিলেন কলকাতার সাইবার অপরাধ বিশেষজ্ঞ সন্দীপ সেনগুপ্ত। 

❏‌ কীভাবে চুরি হচ্ছে?‌‌

❏‌ যাদবপুর এলাকার কিছু এটিএম কাউন্টারে নিরাপত্তারক্ষী নিযুক্ত করা নেই। সেইসব কাউন্টারে খুব সহজেই অপরাধীরা নিজেদের কাজ হাসিল করে নিতে পারে। এটিএম মেশিনের যেখানে কার্ড ঢোকাতে হয় সেখানে স্কিমার মেশিন লাগিয়ে দিলে ডেবিট কার্ড এর ছাপ পড়ে যায়। সেভাবেই অপরাধীরা জেনে নিচ্ছে গ্রাহকের পিন কোড আর সিভিভি। আর চুরি হয়ে যাচ্ছে হাজার হাজার টাকা। 

❏‌ কী সতর্কতা নেবেন?‌‌

● মাঝে মাঝেই পিন নম্বর বদলে ফেলতে হবে। যেহেতু চুরি হচ্ছে, তাই এখনই একবার বদলে নেওয়া উচিত। 
●‌ নিরাপত্তারক্ষী না থাকা এটিএম কাউন্টারগুলি এড়িয়ে চলাই ভাল। 
●‌ খুব প্রয়োজন না পড়লে চেষ্টা করুন চেকবুক দিয়ে ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তুলতে। 
‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top