আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আনন্দপুর আবাসনে বোনের দেহ আগলে রইলেন দিদি। দুর্গন্ধ বেরোনোয় পুলিসে খবর দেন প্রতিবেশীরা। পুলিস গিয়ে উদ্ধার করে দেহ। কবে মহিলার মৃত্যু হয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। ময়নাতদন্তের পরেই জানা যাবে মৃত্যুর কারণ এবং সময়। উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে মৃতার দিদিকেও। পুলিস জানিয়েছে মানসিক ভাবে সুস্থ নন তিনি। অপুষ্টি জনিত রোগে ভুগছেন। 
প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন কয়েকদিন আগেই তাঁদের মা–বাবা মারা গিয়েছিলেন। একই অবস্থায় পড়েছিলেন তাঁরাও। প্রতিবেশীরাই নাকি উদ্ধার করে শেষকৃত্য করেন। তার পর থেকে দুই বোন একাই থাকত ফ্ল্যাটে। অত্যন্ত অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ বাস করত তারা। দুর্গন্ধে ঘরে ঢোকা যেত না। বেশ কয়েকবার আবাসনের বাসিন্দারাই উদ্যোগী হয়ে ঘর পরিষ্কার করে দিয়ে এসেছিলেন। তাঁদের অভিযোগ এই নিয়ে একাধিকবার পুলিসকে এবং কাউন্সিলরকে চিঠিও দিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু কোনও কাজ হয়নি। 

ফাইল ছবি। 

জনপ্রিয়

Back To Top