আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ধেয়ে আসছে আমফান। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, কলকাতা থেকে মাত্র ৩৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে অতি শক্তিশালী এই ঘূর্ণিঝড়। আর দিঘা থেকে ২১০ কিলোমিটার দূরে। কলকাতা সহ দুই ২৪ পরগণায় রাত থেকেই শুরু হয়েছে বৃষ্টি। সকাল থেকেই বইছে ঝোড়ো হাওয়া। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বকখালি, কাকদ্বীপ, নামখানা, ফ্রেজারগঞ্জে সকাল থেকে টানা বৃষ্টি। গতকাল রাতেও বৃষ্টি হয়েছে। প্রবল বেগে বইছে ঝোড়ো হাওয়া। দোকানপাট খোলেনি। রাস্তাও ফাঁকা। খবর মিলেছে, প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে ধেয়ে আসার পর আজ বিকেলে সর্বোচ্চ ১৮৫ কিলোমিটার বেগে দীঘা ও বাংলাদেশের হাতিয়া দ্বীপের মাঝে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা। এ রাজ্যে সুন্দরবনের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়ার কথা উমপুনের। ফলে আয়লার পর ফের একবার সুন্দরবনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা। উমপুনের প্রভাব পড়তে পারে কলকাতায়। প্রবল বেগে বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। কলকাতা, হাওড়া, হুগলি পশ্চিম মেদিনীপুর, এই চার জেলায় ঘণ্টায় ১১০-১৩০ কিলোমিটার বেগে বয়ে যেতে পারে ঝড়। সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাসের ফলে দুই ২৪ পরগনার উপকূলে ঢেউয়ের উচ্চতা হতে পারে সর্বোচ্চ ১৫ ফুটের বেশি। পূর্ব মেদিনীপুর উপকূলে ঢেউয়ের সর্বোচ্চ উচ্চতা হতে পারে ১২ ফুট। 
আবহাওয়া দপ্তর আগেই জানিয়েছে, বুধবার ভোর থেকে ঝড়, বৃষ্টি বাড়বে। শুরুতে ঘণ্টায় ৭৫ থেকে ৮৫ কিলোমিটার, ক্ষেত্র বিশেষে ৯৫ কিলোমিটার বেগে ঝড় হবে। সঙ্গে বৃষ্টি। বেলা বাড়ার সঙ্গে ভারী বৃষ্টির সঙ্গে ঝড়ের গতি বাড়বে। কলকাতায় ঝড়ের গতি থাকতে পারে ১১০ থেকে ১২০ কিলোমিটার, যা বেড়ে ১৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে। উপকূলে ঝড়ের গতি আরও তীব্র, ১৬৫ থেকে ১৭৫ কিলোমিটার হতে পারে। তা আরও কিছুটা বেড়ে ১৮৫ কিলোমিটারে পৌঁছে যেতে পারে।
মৌসম ভবন  জানিয়েছে, এদিন দুপুর আড়াইটে নাগাদ ‘‌আমফান’‌ পারাদীপ থেকে ৩৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ, দিঘা থেকে ৫১০ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ–পশ্চিম এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়া থেকে ৬৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ–পশ্চিমে ছিল। সেই সময় শক্তি খুইয়ে সুপার সাইক্লোন থেকে চরম অতি–প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে (‌এক্সট্রিমলি সিভিয়র সাইক্লোনিক স্টর্ম)‌ পরিণত হয়েছিল। সেই সময় ঝড়ের গতি ছিল ঘণ্টায় ২০০ থেকে ২১০ কিলোমিটার। উপকূলে আছড়ে পড়ার পর তার গতি আরও কিছুটা কমে অতি–প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে।
আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, কলকাতা, হাওড়া, হুগলি দুই ২৪ পরগনা ও দুই মেদিনীপুরে বুধবার ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে। বৃহস্পতিবার দুই ২৪ পরগনা, নদিয়া, মুর্শিদাবাদে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে হিমালয়ের পাদদেশ সংলগ্ন উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে।
মৌসম ভবন জানিয়েছে, মাঝ বঙ্গোপসাগরে ঘণ্টায় ১৮ কিলোমিটার গতিতে উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে ‘‌আমফান’‌। যত এটি কাছাকাছি আসবে, তত হাওয়ার গতি এবং বৃষ্টি বাড়বে। বুধবার বিকেল অথবা সন্ধের কাছাকাছি উপকূলে আছড়ে পড়ার বেশ খানিকটা আগে থেকেই টের পাওয়া যাবে প্রবল ঝড়ের গতি। ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top