আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ গাড়ির গায়ে চাপ চাপ রক্ত। কাঁচ ভাঙা। ভেতরে আবার ইটপাটকেল। দক্ষিণ কলকাতার লেক প্লেস রোডে রাস্তার ধারে পড়ে থাকা এমনই একটি গাড়িকে কেন্দ্র করে আতঙ্কিত হয়ে পড়লেন স্থানীয়রা। কোথা থেকে এল গাড়িটি?‌ কে রেখে গেলেন?‌ রাতে অবশ্য জানা গেল যাবতীয় ঘটনা। 
খবর পাওয়া মাত্রই মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় টালিগঞ্জ থানার পুলিস। আসে লালবাজার থেকে গোয়েন্দারা। গাড়ির ভেতর থেকে উদ্ধার হয় খাবারের প্যাকেট, পাথর, ইটও। তদন্তে নেমে পুলিস জানতে পারে গাড়ির মালিকের বাড়ি মহেশতলার ইডেন সিটিতে। নাম দীপ্তজিৎ শিকদার (‌১৯)‌। গাড়ির চালক পাটুলি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। কেউ বা কারা গাড়ির মালিককে মারধর করে এবং গাড়িটি ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হয় বলে  অভিযোগ। 
ঠিক কী ঘটেছিল?‌ জানা গেছে গাড়িটি ভাড়া খাটত। সোমবার রাতে দীপ্তজিৎ তাঁর এক পরিচিতের সঙ্গে বাইপাস সংলগ্ন এলাকা দিয়ে যাচ্ছিলেন। সেই সময় দুষ্কৃতীদের খপ্পরে পড়েন দীপ্তজিৎরা। দুষ্কৃতীরা সংখ্যায় ছিল তিনজন। দীপ্তজিৎদের কাছ থেকে বেশি কিছু না পাওয়ায় রাগে গাড়িটি ভাঙচুর করে আততায়ীরা। মারধরও করা হয় দীপ্তজিৎদের। কোনওমতে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান দীপ্তজিৎরা। রাতেই পাটুলি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন আক্রান্তরা। হাত–পায়ে চোট লাগায় এম আর বাঙুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় আক্রান্তদের। পুলিস সূত্রে খবর, সোমবার রাত দেড়টা নাগাদ পাটুলি কানেক্টরে আক্রান্তদের পথ আটকায় অভিযুক্তরা। দুটি গাড়িই বারুইপুর থেকে আসছিল। আক্রান্তরা দুষ্কৃতীদের গাড়ির নম্বর পুলিসের কাছে দিয়েছেন। ঠিক কী ঘটনা ঘটেছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ‌

জনপ্রিয়

Back To Top