আজকালের প্রতিবেদন: অ্যাপ–ক্যাবের ভাড়ায় রাশ টানলো রাজ্য সরকার। এবার থেকে নেওয়া যাবে না যথেচ্ছ সারচার্জ। সারচার্জের এই বিষয়টি বেঁধে দিল রাজ্য পরিবহন দপ্তর। ঠিক হয়েছে ৪৫ শতাংশের বেশি সারচার্জ নেওয়া যাবে না। বুধবার বিকেলে ওলা এবং উবের সংস্থার প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কসবায় পরিবহন ভবনে এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, পরিবহন দপ্তরের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, উবের এবং ওলার প্রতিনিধি এবং পরিবহন দপ্তরের অন্যান্য আধিকারিকরা। 
পরিবহন দপ্তরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘‌সরকারের তরফে বলা হয়েছিল সারচার্জ ৪০ শতাংশ পর্যন্ত নিতে। কিন্তু অ্যাপ ক্যাবের প্রতিনিধিরা ৫০ শতাংশের প্রস্তাব দেন। শেষ পর্যন্ত আলোচনায় ঠিক হয় ৪৫ শতাংশের বেশি সারচার্জ নেওয়া যাবে না।’‌ 
কখনও ঝড়বৃস্টি, আবার কখনও গরম, বেশি রাতে বা ভোর রাতে অতিরিক্তি ভাড়া। অভিযোগ, সুযোগ বুঝে এই অ্যাপ–ক্যাব সংস্থাগুলি লাগাম ছাড়া ভাড়া নেয়। যে রাস্তাটুকু পৌঁছে দিতে হলুদ ট্যাক্সি নিচ্ছে একশো বা একশো কুড়ি টাকা, সেই পথটুকুর জন্যই এই গাড়িগুলি নিচ্ছে আড়াইশো বা দু’‌শো সত্তর টাকা। অন্যান্য রাজ্যেও এই গাড়িগুলির ভাড়া নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে সেখানকার সরকার। 
এদিনের বৈঠকে আরেকটি যে বিষয় ঠিক হয়েছে সেটি হল মোট গাড়ির এক চতুর্থাংশের ওপর সারচার্জ নেওয়া যাবে। বাকি গাড়িগুলির ক্ষেত্রে নেওয়া যাবে না। 
এবিষয়ে এক আধিকারিক বলেন, ‘‌এবিষয়ে রাজ্য সরকারকে প্রতি মাসে রিপোর্ট দিতে হবে। সরকার প্রতি তিন মাস অন্তর এর ওপর রিভিউ মিটিং করবে।’‌ 
এর পাশাপাশি এদিনের বৈঠকে প্রশ্ন ওঠে এই গাড়িগুলির বেসিক ভাড়া কত?‌ ঠিক হয়েছে বৃহস্পতিবার এবিষয়ে পরিবহন দপ্তরকে জানিয়ে দেবে দুই অ্যাপ–ক্যাব সংস্থা। সেই সঙ্গে সরকারের তরফে অনুরোধ করা হয়েছে, ছুটির দিন ছাড়া সকাল আটটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত সারচার্জ না নিতে।  

জনপ্রিয়

Back To Top