আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা দেশে লাফিয়ে বাড়ছে। প্রায় দিনই নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা আগের দিনের রেকর্ড ভাঙছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ হাজার ৪৫৯ জন। এর মধ্যে কিছুটা হলেও কলকাতার জন্য স্বস্তির বার্তা আনল একটি সমীক্ষা। ১৪ শতাংশ কলকাতাবাসীর মধ্যেই কোভিড প্রতিরোধের ক্ষমতা তৈরি হয়েছে। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সক্ষম অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গেছে তাঁদের। 
এ কথা বলছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (‌আইসিএমআর)‌–এর একটি সমীক্ষা। কোভিড ঠেকানোর জন্য একটি সমীক্ষা চালিয়েছে তারা। সেটিই এবার প্রকাশ করল পিটিআই। 
রাজ্যের বিভিন্ন জেলার বাসিন্দাদের এলোপাথারিভাবে র‌্যাপিড টেস্ট করানো হয়েছে। এক একটি গোষ্ঠীর মধ্যে সংক্রমণের হার কত, কোনও গোষ্ঠীর কোনও বিশেষ ভাইরাস প্রতিরোধের ক্ষমতা রয়েছে কিনা দেখার জন্যই সমীক্ষাটি করা হয়। যদিও কত জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, জানা যায়নি। চিকিৎসকরা বলছেন, মেট্রো শহরগুলোয় সংক্রমণের হার এমনিতেই জেলার তুলনায় বেশি। 
আশ্চর্যের বিষয়, কলকাতাবাসীদের জেলার তুলনায় সংক্রমণ প্রতিরোধের ক্ষমতাও বেশি। দক্ষিণ ২৪ পরগণায় ২.‌৫ শতাংশ মানুষের কোভিড ঠেকানোর অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। আলিপুরদুয়ারে ১ শতাংশ। পূর্ব মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়ায় এই হার ১ শতাংশেরও কম। অ্যান্টিবডি হল দেহজাত এক প্রকার প্রোটিন। বাইরের কোনও জীবাণু বা অ্যান্টিজেন শরীরে প্রবেশ করলে এই অ্যান্টিবডি তাকে রুখে দেয়। 
রবিবার রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, বাংলায় এক দিনে ৫৭২ জনের কোভিড ধরা পড়েছে। এই রাজ্যে এ-পর্যন্ত সর্বাধিক। আক্রান্তের নিরিখে শীর্ষে রয়েছে কলকাতা (১৭১), উত্তর ২৪ পরগনা (১৩২) এবং হাওড়া (৭৮)। ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছএন ১০ জন। রাজ্যে মোট মৃত হল ৬৩৯। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top