সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন, ২৪ সেপ্টেম্বর

৩ নভেম্বরের ভোটে ডেমোক্র‌্যাট পার্টির প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের কাছে হারলেও শান্তিপূর্ণ পথে ক্ষমতা ছাড়বেন কি?‌ সে ব্যাপারে স্পষ্ট করে কিছু বলতে অস্বীকার করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প বলেন, তিনি হারতেই পারেন না। যদি হারেন, তা হলে ধরে নিতে হবে মেল–ইন ভোটিংয়ে কোনও জালিয়াতি হয়েছে।
মার্কিন ভোট ব্যবস্থায় ভোটকেন্দ্রে অনুপস্থিত ভোটাররা পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে ব্যালটগুলি ডাকে পাঠিয়ে দেন। তাকে বলে মেল–ইন ভোট। ওই ভোটে অতীতে ব্যাপক জালিয়াতির প্রমাণ নেই। কিন্তু ট্রাম্পের দাবি,‘আমরা দেখতেই পাব কী হচ্ছে। আমি বহুদিন ধরে ব্যালটের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে আসছি। এই ব্যালট থেকেই যত গন্ডগোলের সূত্রপাত।’
আমেরিকার বিভিন্ন প্রদেশে এখন নানা রকম অশান্তি চলছে। হেরে গেলে শান্তিপূর্ণ ভাবে ক্ষমতা ছেড়ে দেওয়া নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘আগে ব্যালটকে বিদায় করুন, তার পর দেখবেন, খুব শান্তিতেই সব কিছু হচ্ছে।’ পরে তিনি বলেন, ‘ব্যালটগুলো নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। আপনারা সে কথা জানেন। ডেমোক্র্যাটরা এ কথা সবচেয়ে বেশি জানে।’ 
জুলাই মাসে এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন যদি ভোটে জিতে যান, আপনি কি তঁাকে মেনে নেবেন? ট্রাম্প বলেন, ‘ব্যাপারটা ভবিষ্যতের। আমি এখনই বলতে পারছি না যে, মেনে নেব। অবশ্য এও বলছি না যে, মানব না।’ গত বুধবার ট্রাম্প নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে বলেছিলেন, বিজয়ীকে সম্ভবত সুপ্রিম কোর্টে যেতে হবে। সেজন্যই সুপ্রিম কোর্টের প্রয়াত বিচারপতির জায়গায় দ্রুত তিনি নিজের মনোনীত ব্যক্তিকে বসিয়েছেন। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে হিলারি ক্লিন্টনের বিরুদ্ধে ভোটে লড়ার সময়ও ট্রাম্প নির্বাচনের ফল তঁার বিরুদ্ধে গেলে কী করবেন, সে প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে গিয়েছিলেন। এবারও ট্রাম্প গোড়া থেকেই বলে আসছেন যে, নির্বাচনে কারচুপি হলে তবেই বাইডেন জিততে পারেন, অন্যথায় নয়।‌

জনপ্রিয়

Back To Top