‌সংবাদ সংস্থা
প্যারিস, ২৮ জুন

থামার নাম নেই। বিশ্বে করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেল ১ কোটি। মাত্র সাত মাসে মৃত্যু হয়েছে প্রায় পাঁচ লক্ষ মানুষের। হিসেব বলছে গত ছ’‌দিনে বিশ্বে ১০ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। পৃথিবী আকুল হয়ে খুঁজছে প্রতিষেধক। 
প্রতিদিন বিশ্বের নানা প্রান্তে অসংখ্য মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। রবিবার পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ১ লক্ষ ১৮ হাজার ৯৫২। মৃত ৪,৯৮,৭৭৯। আক্রান্তদের অধিকাংশ আমেরিকা ও ইওরোপের দেশগুলির। শুধু আমেরিকাতেই প্রায় ২৬ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত। মে মাসে সংক্রমণ একটু কম থাকলেও আমেরিকার বিভিন্ন প্রদেশে সংক্রমণ আবার বেলাগাম। পরিসংখ্যানে স্পষ্ট, আক্রান্তদের মধ্যে ২৫ শতাংশের বেশি উত্তর আমেরিকার, ২৫ শতাংশ লাতিন আমেরিকার, এবং ২৫ শতাংশ ইওরোপের। বাকি ২৫ শতাংশ অবশিষ্ট বিশ্বের। গবেষকদের একাংশের মতে, এভাবে চললে অক্টোবরে লাতিন আমেরিকায় মৃতের সংখ্যা ৩,৮০,০০০–এ পৌঁছে যাবে। তবে মার্চের তুলনায় অবস্থা এখন মন্দের ভাল। মার্চে সংক্রমণের দৈনিক বৃদ্ধির হার ১০ শতাংশের ওপরে ছিল। গত সপ্তাহে এই বৃদ্ধির হার ছিল ১–২%। মোট আক্রান্তের সংখ্যায় আমেরিকার পরই ব্রাজিল— সংখ্যাটা ১ লক্ষ ৩২ হাজার প্রায়। 
চীনের উহান থেকে প্রথম করোনা সংক্রমণের খবর এসেছিল গত ডিসেম্বরে। তারপর মারণভাইরাস ছড়িয়েছে বিশ্বের অন্যান্য দেশে। ইওরোপ, আমেরিকার পর রাশিয়ায় জাঁকিয়ে বসে করোনাভাইরাস। ভারত–‌সহ বিশ্বের প্রায় সব দেশই এখন লড়ছে করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে। ‌‌‌
আমেরিকায় সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা বাড়লেও নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওদিকে চীন, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে আবার নতুন করে সংক্রমণ ছড়িয়েছে। চীনের বেজিংয়ের পরিস্থিতি বেশ জটিল। সেখানে আক্রান্ত শতাধিক। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে রবিবার থেকে বেজিংয়ে লকডাউন চালু হয়েছে। ওদিকে সংক্রমণ বৃদ্ধিতে চিন্তিত ইরান। সংক্রমণে রাশ টানা না গেলে দেশের আর্থিক সমস্যা আরও বাড়বে বলে সতর্ক করেছেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়তুল্লা আলি খামেনি। 

জনপ্রিয়

Back To Top