আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভোটে হারলে ক্ষমতার হস্তান্তর শান্তিপূর্ণভাবে নাও হতে পারে!‌ ট্রাম্পের ইঙ্গিতে নয়া জল্পনা শুরু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘‌দেখা যাক কী হয়!‌ আপনারা জানেন, অনেকদিন ধরেই আমি ব্যালটের বিরোধিতা করে আসছি। কিন্তু ব্যাপার হল, সবই শান্তিপূর্ণভাবে  হবে, কারণ ক্ষমতার হস্তান্তরের গল্পই নেই!‌ ডাকযোগে ভোট হলে, তা হাতের বাইরে চলে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। ডেমোক্র‌্যাটরা আরও ভাল জানে ব্যাপারটা।’‌ 
ট্রাম্পের ইঙ্গিত প্রকাশ্যে আসতেই তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে মার্কিন সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন। ন্যাশনাল লিগাল ডিরেক্টর ডেভিড কোল বলেন, ‘ক্ষমতার ‌শান্তিপূর্ণ হস্তান্তর গণতন্ত্রের স্বার্থে জরুরি। প্রতিটি মার্কিন নাগরিকের উচিত, মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই মন্তব্যের বিরোধিতা করা।’‌ প্রতিক্রিয়ায় জো বিডেন বলেন, ‘‌কোন দেশে আছি আমরা?‌ আমি রসিকতা করছি। দেখুন, ওনার মতো অবিবেচক খুব একটা দেখা যায় না। কী  বলব, জানি না। এমনকী বিস্মিতও হচ্ছি না!‌ ভোটের ফলাফল মার্কিনিরা ঠিক করবেন। এবং হোয়াইট হাউজ থেকে অনধিকারপ্রবেশকারীদের কী করে বের করে আনতে হয়, ভালই জানে মার্কিন সরকার।’‌ 
গত আগস্ট মাসেও ট্রাম্প বলেছিলেন, মেইল ইন ব্যালটে জালিয়াতির সম্ভাবনা রয়েছে। মাঝে এও বলেছেন, নির্বাচনে রায় বিপক্ষে গেলে ভোটের ফলাফল তিনি মেনে নেবেন না। তারই পরিপ্রেক্ষিতে বাইডেন বলেন, ‌নির্বাচনে হেরেও যদি ট্রাম্প হোয়াইট হাউস ছাড়তে রাজি না হন, সেনাবাহিনীই তাঁকে বের করে আনবে। 

জনপ্রিয়

Back To Top