US monitoring Pak: পাকিস্তানের তালিবান-প্রীতিতে সন্তুষ্ট নয় আমেরিকা, রাখা হচ্ছে কড়া নজর      

আজকাল ওয়েবডেস্ক: আফগানিস্তানে তালিবানি অভ্যুত্থানে সরাসরি সমর্থন করেছিল পাকিস্তান। এমনকী ওদেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তালিবদের স্বাধীনতা সংগ্রামী বলে আখ্যা দিয়েছিলেন। এর ফল মিলল হাতেনাতে। তালিবান ইস্যুতে পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে দ্বিধাগ্রস্ত আমেরিকা। সেক্রেটারি অফ স্টেট অ্যান্টনি ব্লিনকেন সোমবার জানিয়েছেন, আগামী কয়েক সপ্তাহে আকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্কের ওপর নজর থাকবে। 

আরও পড়ুন: ভারত নাকি আইসিসকে সাহায্য করে! হাস্যকর অভিযোগ পাকিস্তানের 


আফগানিস্তান নিয়ে কংগ্রেসের প্রকাশ্য শুনানিতে বিদেশ বিষয়ক কমিটির হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভদের সামনে ব্লিনকেন বলেন, ‘পাকিস্তানের এমন বিবিধ উৎসাহ রয়েছে যাতে আমাদের সঙ্গে দ্বন্দ্ব হতে পারে।’ প্রধানত তিনটি বিষয় তুলে ধরেন সেক্রেটারিও অফ স্টেট। প্রথমত, আফগানিস্তানের ভবিষ্যত নিয়ে পাকিস্তান হয়তো প্রতিনিয়ত জুয়া খেলছে। দ্বিতীয়ত, তালিবান সদস্যদের আশ্রয় দেওয়ার বিষয়টিও রয়েছে এবং তৃতীয়ত, সন্ত্রাস দমনে পাকিস্তানের সহযোগিতার কিছু অংশ নিয়ে আমেরিকার সঙ্গে দ্বন্দ্ব লাগতে পারে পাকিস্তানের। 
সাংসদরা ব্লিনকেনকে প্রশ্ন করেন, পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে পুনরায় পর্যালোচনা প্রয়োজন রয়েছে কি না। ব্লিনকেন জানান, প্রশাসন খুব শিগগিরই তা-ই করতে চলেছে। তাঁর কথায়, ‘এই বিষয়টা নিয়ে আগামী দিনে এবং সপ্তাহে ভাবব আমরা। ২০ বছর ধরে পাকিস্তান কী ভূমিকা নিয়ে এসেছে, আগামী দিনে তাদের ভূমিকা আমরা কেমন চাই, তাঁর জন্য কী করতে হবে— সবই ভেবে দেখা হবে।’ অর্থাৎ, পাকিস্তানের সাম্প্রতিক তালিবান-যোগে খুব একটা সন্তুষ্ট নয় বাইডেন প্রশাসন, তা স্পষ্ট।