‌সংবাদ সংস্থা, দিল্লি ও ওয়াশিংটন: হেলিকপ্টার বেচতে ভারতে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ২৬০ কোটি ডলারের চুক্তি। চূড়ান্ত হবে ট্রাম্পের প্রথম ভারত সফরে। সঙ্গী ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। ২৪ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি দু’‌দিনের সফরে দিল্লি ও আমেদাবাদ যাবেন তাঁরা। দু’বছর ধরে ভারত–মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বেশ কয়েকটি বাণিজ্যিক চুক্তি ঝুলে রয়েছে। সেগুলির ফয়সালা হতে পারে। 
ট্রাম্পের এই সফরে মূলত প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম লেনদেন নিয়েই কথা হবে। রাশিয়ার কাছ থেকে বরাবর প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কিনেছে ভারত। কিন্তু চীনের সঙ্গে পাল্লা দিতে ২০০৭ সাল থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কিনতে শুরু করেছে। এখনও পর্যন্ত ১৭০০ কোটি ডলারের মার্কিন প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কিনেছে তারা। এবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সংস্থা লকহিড মার্কিন কর্পোরেশন থেকে হেলিকপ্টার কিনতে চলেছে ভারত। ২৪এমএইচ–৬০আর সিহক হেলিকপ্টার ব্যবহার করবে নৌবাহিনী। নৌবাহিনীর অনেক জাহাজে হেলিকপ্টার নেই। সেই ঘাটতি মেটাতেই হেলিকপ্টার কেনার চুক্তি হয়েছে ২৬০ কোটি ডলারে। আগামী দু’‌সপ্তাহের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন ক্যাবিনেট কমিটি ছাড়পত্র দিয়ে দেবে।
ভারতের বাজারের দিকে বরাবরই নজর রয়েছে ট্রাম্পের। ভারত বিদেশি পণ্যের আমদানি শুল্ক বাড়ানোর পর চটেছিলেন ট্রাম্প। ভারতকে ‘‌ট্যারিফ কিং’‌ বলে কটাক্ষ করতেও ছাড়েননি। মার্কিন মুলুকে ভারতীয় পণ্য প্রবেশের ক্ষেত্রেও কড়াকড়ি করেছেন। সেই সব ভুল বোঝাবুঝি মিটিয়ে এবার আরও কিছু আইসিটি পণ্যের আমদানি শুল্ক কম করিয়ে নেওয়া, দুগ্ধজাত দ্রব্য, চিকিৎসা সরঞ্জাম নির্মাণকারী মার্কিন সংস্থাগুলিকে ভারতের বাজারে আরও বেশি করে ছড়িয়ে দেওয়ার দিকেই নজর রয়েছে ট্রাম্পের। এভাবে নিজেদের দেশে আর্থিক সমৃদ্ধি ঘটাতে তৎপর ট্রাম্প। এদিকে ভারতও আমেরিকার বাজার ধরে রাখতে চায়। ইস্পাত, অ্যালুমিনিয়ামজাত দ্রব্য–‌সহ অনেক ভারতীয় পণ্যের ওপর শুল্ক বাড়িয়েছে আমেরিকা। এই সুযোগে চাপ দিয়ে সেই সমস্ত জিনিসের রপ্তানি শুল্ক কমাতে চাইছে দিল্লি। বাণিজ্যিক ও প্রতিরক্ষা বিষয়ে হিসেব কষে এগোচ্ছে দুই দেশ।
এদিকে গত বছর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সফরে হিউস্টনে ‘‌হাউডি মোদি’‌ আয়োজিত হয়েছিল। চোখ ধাঁধানো অনুষ্ঠান। তার পাল্টা ট্রাম্পের সৌজন্যে আমেদাবাদে ‘‌কেম ছো ট্রাম্প’‌–‌এর আয়োজন তুঙ্গে। এর আগে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ভারতে এসেছিলেন। তখন যে অনুষ্ঠান হয়েছিল তাকেও টেক্কা দেবে এবারের অনুষ্ঠান। 
হোয়াইট হাউসের প্রেস সচিব স্টিফানে গ্রিশাম জানান, ‘আগ্রায় তাজমহল দেখতে যেতে পারেন তাঁরা। তবে তা নিশ্চিত নয়।‌’‌‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top