আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আমেরিকার করোনা পরিস্থিতিই আপাতত ট্রাম্পের কাছে ভিলেন। সে কথা নতুন করে বলতে হয় না। এই একটি বিষয় ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে পিছনে ফেলে দিয়েছে। এগিয়ে দিয়েছে ডেমোক্র‌্যাট প্রার্থী বাইডেনকে। তাই প্রচারে এই নিয়ে আর বেশি মুখই খুলছেন না ট্রাম্প। 
কী করেছেন, সেসব নিয়ে আর মাথা ঘামাচ্ছেন না। বরং বিপক্ষরা আসলে কী, তাতেই জোর দিচ্ছেন। আর তা করতে গিয়ে বিপক্ষের দিকে এই বলেই আঙুল তুলছেন, যে তারা ক্ষমতায় এলে আমেরিকা ‘‌কমিউনিস্ট’‌ দেশ হয়ে যাবে। ভিন দেশ থেকে আরও উদ্বাস্তুদের দেশে আনা হবে। আর এই করতে গিয়ে দেশছাড়া হতে পারেন তিনিই, সেই আশঙ্কাও করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।
ফ্লোরিডা আর জর্জিয়ায় প্রচারে গিয়ে ট্রাম্প বললেন, ‘‌প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে সবথেকে খারাপ বিপক্ষের বিরুদ্ধে লড়ছি আমি। তাই বাড়তি চাপ তৈরি হচ্ছে। ভাবতে পারছেন, আমি হারলে কী হবে?‌’‌ এখানেই থামলেন না তিনি। বললেন, ‘‌আমি কী করব?‌ এ রকম ভালো আর থাকব না। হয়তো আমায় দেশ ছাড়তে হবে। আমি জানি না।’‌
ফ্লোরিডায় ওকালায় গিয়ে ট্রাম্প বললেন, ডেমোক্র‌্যাটরা আসলে আমেরিকাকে ‘‌কমিউনিস্ট দেশে পরিণত করতে চাইছে।’‌ সেই সঙ্গে লাতিন আমেরিকা থেকে আসা উদ্বাস্তুদের দিকেও আঙুল তুললেন, বললেন, ডেমোক্র‌্যাটরা দেশে ‘‌বেআইনি ভিনদেশি, মাদক, অপরাধে ভরিয়ে তুলবে।’‌ বাইডেনের প্রচারের মূলমন্ত্র যদিও একটাই। ট্রাম্পের দুর্নীতি আর দেশে করোনা পরিস্থিতি। 

জনপ্রিয়

Back To Top