আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দেশ জোড়া ‌কার্ফুর মধ্যেই এক মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যা করল শ্রীলঙ্কাবাসী। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে শ্রীলঙ্কার পুত্তালাম জেলায়। ৪৫ বছরের ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি করার কিছুক্ষণ পরই তিনি মারা যান। ইস্টার বিস্ফোরণের পর থেকেই মুসলিম–বিরোধী গন্ডগোল চলছে শ্রীলঙ্কায়। রবিবার থেকে তা চরমে ওঠে যখন পুত্তালাম সহ শ্রীলঙ্কার বিভিন্ন এলাকায় শুরু হয় হিংসাত্মক ঘটনা। প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিস জানিয়েছে, ওই যুবক নিজের কাঠের দোকানে কাজ করছিলেন। উন্মত্ত জনতা তাঁর দোকানে ঢুকে পড়ে সেখান থেকেই কাঠ কাটার ধারালো যন্ত্রপাতি নিয়ে যুবককে কোপাতে থাকে। সঙ্গে চলতে থাকে এলোপাথাড়ি মারধর। ওই যুবকই এই হিংসার প্রথম বলি বলে জানিয়েছে পুলিস। 
কোনও রকম অশান্তি রুখতে শ্রীলঙ্কায় সোশ্যাল মিডিয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। ইস্টার হামলার পর গত রবিবারই প্রথমবার রবিবারের প্রার্থনার জন্য গির্জাগুলি খুলে দিয়েছে ক্যাথলিক কমিউনিটি। তারপরই মুসলিম–বিরোধী উত্তাপ তীব্র হয়েছে দ্বীপরাষ্ট্রে। হিংসা থামাতে নির্দেশ দিয়ে পুলিসকে আরও ক্ষমতা দিয়ে পুলিস প্রধান চন্দনা বিক্রমরত্নে দেশবাসীকে সতর্ক করে বলেছেন কোনওরকম অশান্তিমূলক কাজ করতে দেখলেই পুলিস কড়া পদক্ষেপ করবে। দেশবাসীকে শান্ত থাকার আবেদন করে প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংঘে বলেছেন, উত্তরপশ্চিমাংশে একদল অজ্ঞাতপরিচয় মানুষ গন্ডগোল পাকাচ্ছে। পুলিস তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছে। ‌
ছবি:‌ আলবিলাড‌

জনপ্রিয়

Back To Top