‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সংঘর্ষবিরতি শুধু মুখের কথা। সিরিয়ায় নিরপরাধ মানুষের রক্ত ঝরা থামছেই না।
এই মুহুর্তে বিশ্বের অন্যতম মৃত্য়ু উপত্যকা সিরিয়া আবারও রক্তাক্ত। সিরিয়া সরকারের বিরোধীদের ওপর ক্রমাগত হামলার জেরে বিধ্বস্ত সেদেশের দামাস্কাস সংলগ্ন পূর্ব ঘওতা এলাকা। সিরিয়া সরকার ও রাশিয়ার যৌথ আক্রমণে গত কয়েকদিনে সিরিয়া হারিয়েছে কমপক্ষে ১২০ জন শিশুকে। গত আট দিনে ৫০০ও বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন সেখানে। আহত হাজারের কাছাকাছি মানুষ।

পঙ্গু হয়ে পড়েছেন অনেকে। ভেঙে গুঁড়িয়ে তছনছ হয়ে গিয়েছে এলাকার পর এলাকা। এদিকে, জাতিসংঘের সিকিউরিটি কাউন্সিলের তরফে ৩০ দিনের সংঘর্ষ বিরতির কথা ঘোষণা করা হলেও, যুদ্ধ এখনও থামেনি। ক্রমাগত বসতি এলাকা লক্ষ্য করে চলছে গোলা বর্ষণ। গত এগারো ঘণ্টায় নতুন করে আক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন আরও ৪ জন। সিরিয়ার দৌমা, হারাস্তাতে মঙ্গলবার প্রবল গোলাবর্ষণ করা হয় আকাশপথে। উল্লেখ্য, সিরিয়ার প্রাক্তন রাষ্ট্রপ্রধান বাশার আল আসাদের সমর্থক তথা বর্তমানে সরকারে বিরোধীদের এইভাবে হত্যা কার হচ্ছে।

এ নিয়ে সমালোচনায় মুখর হয় আন্তর্জাতিক মহল। রাষ্ট্র সংঘের তরফে এ নিয়ে পদক্ষেপ হিসাবে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের কথা বলা হয়। কিন্তু তাতেও বাঁধ মানছে না সরকার পক্ষের ক্ষোভ। নিরস্ত্র শিশু মহিলাদের ওপরও চলছে হামলা। পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও। যদিও ঘওতার আক্রান্তদের দাবি, এলাকা ছাড়ার জন্য রাশিয়া নিরাপত্তা দেবে বলে জানালেও, তাঁদের ওপর ক্রমাগত বোমা বর্ষণ করছে পুতিনের দেশ।উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও। যদিও ঘওতার আক্রান্তদের দাবি, এলাকা ছাড়ার জন্য রাশিয়া নিরাপত্তা দেবে বলে জানালেও, তাঁদের ওপর ক্রমাগত বোমা বর্ষণ করছে পুতিনের দেশ। ‌

জনপ্রিয়

Back To Top